আত্ম গোপনের নাটক করেছিলো ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী শানু

আত্ম গোপনের নাটক করেছিলো ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী শানু
মোফাজ্জল হোসেন ইলিয়াছ/খাগড়াছড়িঃ নিখোঁজ নয় পরিকল্পিতভাবে আত্ম গোপনের নাটক করেছিলেন খাগড়াছড়ি গুইমারা উপজেলার জালিয়াপাড়া এলাকার ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী শানু মুছল্লি (৫১)।এরপর পরিবারের লোকদের দিয়ে গুইমারা থানায় নিখোজেঁর ডায়েরি করায় সে।
নিখোঁজের ৬দিন পরে পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাকে আটক করার পর বিষয়টি জানাযায়। শানু মিয়া জালিয়াপাড়া এলাকার মৃত আব্দুস সামাত মুছল্লির ছেলে। আটক শানু মুছল্লি জানান, সে মূলত ভাঙ্গারী ব্যবসার আড়ালে টক্কা ব্যবসা করে।
গত ১৩ই অক্টোবর বুধবার সকালে পরিকল্পিত ভাবে জালিয়াপাড়া থেকে চট্রগ্রাম তার চাচাতো বোনের কাছে গিয়ে এ নাটকটি সাজায়। পরে আঞ্চলিক সংগঠনের দুই সদস্য ৫০ হাজার টাকা দাবি করে, তাকে আটক করে রেখেছে বলে মোবাইল ফোনে ছেলেকে জানায়।
গুইমারা থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী শানু মুছল্লি নিখোঁজ হয়নি পরিকল্পিতভাবে আত্ম গোপনের নাটক সাজিয়েছে।
তার বিষয়ে মামলা হচ্ছে। এর আগেও সে বেশ কয়েক বার পরিবারকে না জানিয়ে এমন করেছে। উল্লেখ্য গত ১৩ অক্টোবর বুধবার সকালে নিখোঁজের সাটক সাজানোর পর পরিবারের লোকজনের নিকট রাঁত ১০টার সময় ফোনে জানায়, আঞ্চলিক সংগঠনের দুই সদস্য ৫০ হাজার টাকা দাবি করে তাকে আটক করে রেখেছে। এরপর থেকে মোবাইল ফোন বন্ধ করে রেখেছে। পরে তার স্ত্রী ৪ দিন পর গুইমারা থানায় সাধারন ডায়েরি করেছেন।