বছরের সবচেয়ে ছোট রাত আজ

আপনি আজ বছরের দীর্ঘতম দিন অতিবাহিত করছেন। সন্ধ্যা নামলেই শুরু হবে বছরের সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম রাত। এরপরই প্রতিনিয়ত রাতের দৈর্ঘ্য বাড়বে। ছোট হতে থাকবে দিন।

রাজধানী ঢাকায় আজ সূর্য ডুববে ৬টা ৪৯মিনিটে এবং কাল হবে সূর্যোদয় ভোর ৫ টা ১২ মিনিটে। হিসেব মতে, ঢাকায় আজ রাতের দৈর্ঘ্য হবে ১০ ঘণ্টা ২৩ মিনিট। দেশের অন্যান্য শহরগুলোতেও রাতের দৈর্ঘ্য এর কাছাকাছিই থাকবে।

ভৌগলিক নিয়ম অনুসারে পৃথিবী সাধারণত দুটি ভাগে বিভক্ত। উত্তর গোলার্ধ ও দক্ষিণ গোলার্ধ। এক গোলার্ধে যে অবস্থা বিরাজ করে প্রকৃতির নিয়ম অনুসারেই তখন অন্য গোলার্ধে বিপরীত অবস্থা বিরাজ করে। আর এই কারণেই পৃথিবীর বার্ষিক গতি চলতে থাকে। যার কারণে পৃথিবীর ঋতু পরিবর্তিত হয়।

আজকের দিনটি কর্কট ক্রান্তি দিবস হিসেবে পরিচিত। এটি উত্তর গোলার্ধের সবচেয়ে বড় দিন। এ দিনে সূর্য সবচেয়ে বেশি সময় ধরে কিরণ দেবে পৃথিবীর এ অংশে। কর্কট ক্রান্তি রেখা আর মকর ক্রান্তি রেখা দু’টির মধ্যে কর্কট ক্রান্তি রেখা দিন কতটা বড় হবে তা নির্ধারণ করে থাকে। আজকে দিনে সূর্য কিরণ থাকবে ১৩ ঘণ্টা ৩৬ মিনিট ৮ সেকেন্ড।

২৩ সেপ্টেম্বর সূর্য আবার অবস্থান নেয় বিষুব বৃত্তের বিন্দুতে, যেখানে ক্রান্তি বৃত্ত ও বিষুব বৃত্ত পরস্পরকে ছেদ করেছে। একে বলা হয় জলবিষুব বিন্দুতে। এই দিন পুনরায় পৃথিবীর সর্বত্র দিন-রাত সমান হয়ে থাকে।

এর পর থেকেই আবার উত্তর গোলার্ধে ক্রমশ রাত বড় হতে হতে সূর্য পৌঁছে যায় ক্রান্তি বৃত্তের দক্ষিণ অয়নায়ন বিন্দুতে। এভাবে ২১ ডিসেম্বর তারিখে উত্তর গোলার্ধে হয় দীর্ঘতম রজনী আর ক্ষুদ্রতম দিবস। এ সময় সূর্য মকর বৃত্তে অবস্থান করে থাকে।

উত্তর গোলার্ধে সূর্য সোমবার বেশি সময় ধরে কিরণ দেওয়ার কারণে দক্ষিণ গোলার্ধে কিন্তু স্বভাবতই দিন হবে সবচেয়ে ছোট। উত্তর গোলার্ধে সোমবার দুপুর ১২টায় সূর্য থাকবে ঠিক কর্কট ক্রান্তি রেখার উপরে।