সুনামগঞ্জে মেয়ের লাঠি পেটায় নিহত হলেন মা!

ষ্টাফ রিপোর্ট: মেয়ের লাঠি পেটায় সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে গুল জাহান বেগম (৫৫) নামে এক মা নিহত হলেন।
সোমবার বেলা তিনটার দিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

নিহত গুল জাহান উপজেলার দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের আমতৈল দক্ষিণ পাড়ার কুড়ের পাড়ের আক্তার মিয়ার স্ত্রী।
সোমবার রাতে তাহিরপুর থানার উওর বড়দল ইউনিয়নের বিট অফিসার এসআই শাহাদাত হোসেন মেয়ের লাঠি পেটায় ওই মহিলা নিহত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, এ ব্যাপারে সোমবার রাত পৌণে ১০টা অবধি কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি।
সোমবার রাতে নিহত গুল জাহান বেগমের স্বামী উপজেলার আমতৈল দক্ষিণ পাড়ার কুড়ের পাড়ের আক্তার মিয়ার সহোদর ভাই আব্দুল মিয়া জানান, রবিবার এশা নামাজের পুর্বে বসত বাড়ির ভেতর রাতের খাবার খাওয়ানোর জন্য চতুর্থ মেয়ে খাদেজা বেগম (২৪) ‘মা’ গুল জাহান বেগমকে ডেকে নিয়ে আসে। এ সময় ছোট মেয়ে সাদেকা বেগম ও খোদেজা বেগমকে খাবার খেতে দিয়ে গুল জাহান বেগম নিজেও খাবার খেতে বসেন।

এক পর্যায়ে কুদালের আছাড় (কাঠের লাঠি) নিয়ে খোদেজা তার মায়ের মাথায় কয়েকটি আঘাত করে রক্তার্থ জখম করে। এ সময় খাবার ঘরে থাকা দা লুকাতে দৌড়ে ঘর হতে বের হয়ে ছোট মেয়ে সাদেকা চিৎকার করলে পরিবার ও প্রতিবেশীরা এসে গুল জাহান বেগমকে রাতেই চিকিৎসার জন্য সিলেট এম এম এজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান।
উপজেলার উওর বড়দল ইউনিয়নের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য স্বপ্না বেগম জানান, ওই ঘটনা গ্রামবাসীর মুখে শুনে আমি দেখতে গিয়ে চিতিৎসার জন্য সিলেট নেয়ায় মহিলাকে বাড়িতে পাইনি,পরে সন্ধায় জেনেছি মহিলা হাসপাতালে মারা গেছেন।

আরো পড়ুন :  গাইবান্ধায় ব্যালট পেপার ছিনতাই ৩ জন আটক