খবর

ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রীকে জড়িয়ে ধরে নিচে নামালেন ছাত্রলীগ নেতা!

এবার ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রীকে জড়িয়ে ধরে দোতলা থেকে নিচে নামালেন এক এক ছাত্রলীগ নেতা। এসময় ওই ছাত্রী চিৎকার করায় তাকে চুলের মুঠি ধরে টানাহেঁচড়া করা হয়। পাবনার টেবুনিয়া শামসুল হুদা ডিগ্রি কলেজে ওই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার প্রতিবাদে কলেজ গেটে শিক্ষার্থীরা রোববার বিক্ষোভ ও মানবন্ধন করতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হুমকিতে তা পণ্ড হয়ে যায়।

ভুক্তভোগী ওই কলেজছাত্রী জানান, দীর্ঘদিন ধরে কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রবিন হোসাইন তাকে বিভিন্নভাবে যৌন হয়রানি করে আসছিল। শনিবার দুপুরে কলেজে শিক্ষার্থী কম থাকার সুযোগে রবিন তাকে নির্জন স্থানে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। এতে বাধা দিলে এক পর্যায়ে তাকে জড়িয়ে ধরে দোতলা থেকে নিচে নামিয়ে আনে। একপর্যায়ে তার চুলের মুঠি ধরে লাঞ্ছিত করা হয়। এ সময় তিনি চিৎকার দিলেওকেউ প্রতিবাদ করেননি।

ঘটনার পর কলেজ কর্তৃপক্ষ ভুক্তভোগী ছাত্রী ও অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাকে নিয়ে সালিশে বসলে ওই ছাত্রীকে মারধরের বিষয়টি প্রমাণিত হয়। তবে এ ব্যাপারে কলেজ কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

বিষয়টি নিয়ে রবিন হোসাইন বলেন, ওই ছাত্রীর সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক নেই। বেয়াদবি করায় একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। তবে এ ঘটনার জন্য আমি লজ্জিত।

পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও কলেজ পরিচালনা কমিটির সদস্য আহমেদ শরিফ ডাবলু বলেন, অধ্যক্ষ আমাকে বিষয়টি জানালে আমি দোষীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

টেবুনিয়া শামসুল হুদা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম বাবু বলেন, বিষয়টি সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে।