Bangladesh

করোনায় আক্রান্তদের বাঁচাতে স্বেচ্ছায় প্লাজমা দান করলেন কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশের ১০ সদস্য

করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের বাঁচাতে কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশের ১০ জন সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্লাজমা দান করেছেন। মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার)।

জানা যায়, করোনাযুদ্ধে ফ্রন্টলাইনার হিসেবে পুলিশ শুরু থেকেই কাজ করে যাচ্ছে। কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশের সদস্যরাও সাহসের সাথে আন্তরিকভাবে পেশাগত এই দায়িত্ব পালন করে চলেছেন।

করোনাযুদ্ধে নিবেদিত কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশের সদস্যদের মধ্যে সেবা দিতে গিয়ে এরই মধ্যে ৬০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

কিন্তু করোনার এই থাবা চিড় ধরাতে পারেনি সম্মুখসারির এই যোদ্ধাদের মনোবলে। তাদের মধ্যে ৫৭ জনই করোনার সাথে যুদ্ধ করে আবারও ফিরেছেন মানুষের সেবায়। আর বাকি তিনজনও দেশসেবায় আত্মনিয়োগ করার দৃপ্ত অঙ্গীকার নিয়ে করোনা জয়ের পথে রয়েছেন।

করোনাজয়ী পুলিশ সদস্যরা এবার করোনায় আক্রান্ত অন্যদের বাঁচাতে শুরু করেছেন প্লাজমা দান। এরই মধ্যে কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশের ১০ জন সদস্য প্লাজমা দান করেছেন।

করোনা জয়ের পর ছেলেকে কিডনি দিয়ে জীবন বাঁচালেন বাংলাদেশি মা 

পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) জানান, কিশোরগঞ্জ জেলায় ভৈরব থানায় কর্মরত প্রথম ১০ জন পুলিশ সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন। পরবর্তীতে তারা করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হন। করোনাজয়ী সদস্যরা অন্যদের জীবন বাঁচানোর জন্য কেন্দ্রীয় রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে প্লাজমা ডোনেট করেছেন।

640.jpg

প্লাজমা দানকারীদের রক্ত করোনায় আক্রান্ত মুমুর্ষদের প্রাণ বাঁচাতে সাহায্য করবে এমন আশা প্রকাশ করে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) মানুষের জীবন বাঁচাতে স্বেচ্ছায় প্লাজমা দানকারী পুলিশ সদস্যদের ধন্যবাদ জানান।