জি-৭
Economy আন্তর্জাতিক

ট্রাম্পের প্রস্তাব নাকচ করল জার্মানি: জি-৭ বিতর্ক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শিল্পোন্নত দেশগুলোর জোট গ্রুপ অব সেভেন-এ (জি-৭) রাশিয়াকে পুনরায় অন্তর্ভুক্ত করতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনান্ড ট্রাম্পের প্রস্তাব নাকচ করেছে জার্মানি। প্রভাবশালী জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচ ভেলে’র প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ইউক্রেনে রুশদের আগ্রাসনকে কেন্দ্র করেই ট্রাম্পের প্রস্তাবে আপত্তি জানিয়েছে জার্মানি।

“আগে মস্কোকে ইউক্রেনে সংঘাত নিরসনে বড় কোনো উদ্যোগ নিতে হবে”

-হেইকো মাস, জার্মানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস এ প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘আগে মস্কোকে ইউক্রেনে সংঘাত নিরসনে বড় কোনো উদ্যোগ নিতে হবে।’

জার্মানি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনান্ড ট্রাম্পের প্রস্তাব নাকচ করেছে তারা চাই না যে রাশিয়া আবার G-7 এ যুক্ত হোক।

জি-৭ নিয়ে পূর্বের টানাপোড়েনের কথা স্মরণ করিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘ক্রিমিয়া দখল করে রাশিয়ার অর্ন্তভুক্তকরণ এবং পূর্ব ইউক্রেনে আগ্রাসনের কারণেই রাশিয়াকে জি-৭ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কাজেই যতদিন এ সমস্যার সমাধান না হবে ততদিন আমি কোনো সম্ভাবনা দেখতে পারছি না।শুধু রাশিয়া নিজেই পারে জি-৭-এ প্রবেশের দরজাগুলো খুলতে।’

“রাশিয়ারও উচিৎ, ইউক্রেনে নিজেদের ভূমিকা ঠিকমতো পালন করা। কিন্তু এ বিষয়ে রাশিয়া খুবই ধীর গতিতে এগোচ্ছে।”

-হেইকো মাস, জার্মানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

হেইকো মাস আরও জানান যে, জি-৭ সবসময় জি-২০’র সঙ্গে সমন্বয় করে চলে। শিল্পোন্নত দেশেগুলোর সবচেয়ে বড় গোষ্ঠী জি-২০।রাশিয়া সেখানে রয়েছে।
এছাড়া তিনি বলেন, ‘রাশিয়ারও উচিৎ, ইউক্রেনে নিজেদের ভূমিকা ঠিকমতো পালন করা। কিন্তু এ বিষয়ে রাশিয়া খুবই ধীর গতিতে এগোচ্ছে।’

উল্লেখ্য, সত্তুরের দশকে কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র-কে নিয়ে জি-৭ গঠিত হলেও পরে নব্বই দশকে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের মধ্য দিয়ে দীর্ঘমেয়াদি স্নায়ুযুদ্ধের অবসান হওয়ার পর ১৯৯৮ সালে রাশিয়াও জি-৭-এ যোগ দেয়, তখন জি-৭ হয়ে যায় জি-৮।

আরও পড়ুনঃ বাংলাদেশকে ‘সুবিধা’ দেয়ার পরিকল্পনা ভারতের

পরে ২০১৪ সালে ক্রিমিয়া দখল করে রাশিয়ার অর্ন্তভুক্তকরণ এবং পূর্ব ইউক্রেনে আগ্রাসনের জেরে রাশিয়াকে সাময়িকভাবে থেকে বাদ দেওয়া হলে G-7 আবারও আগের অবস্থায় ফিরে যায়।

এদিকে, ইউক্রেন ইস্যু ছাড়াও রাশিয়ার ওপর আরও একটি ইস্যুতে নাখোশ রয়েছে জার্মানি। আর তা হলো-সিরিয়া ইস্যুতে। মানবতার কথা চিন্তা করে প্রায় ৩০ লাখ সিরিয়াবাসীর কাছে ত্রাণ পৌঁছনোর কার্যক্রমে রাশিয়ার বাধা দেওয়াতে ক্ষেপে যায় জার্মানি।