Bangladesh Dhaka

এডিশনাল ডিআইজি জিহাদুল কবিরের মুখের দিকে তাকিয়ে আছে বিচার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজবাড়ীর কালুখালীর বেতবাড়িয়া গ্রামের রবিউল বিশ্বাস নামে এক ব্যবসায়ীকে হত্যার ঘটনায় গত শনিবার রাতে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
৫ জনকে চিহ্নিত করে দায়ের করা মামলায়র বাদী হয়েছেন, নিহতের স্ত্রী মোছাঃ সাবানা আক্তার। বাদী হয়ে কালুখালী থানায় ৫ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
এ মামলায় রাতেই এজাহার ভুক্ত রাকিব
মন্ডল এবং সন্দেহজনক আসামি হিসেবে ইউসুফ মেম্বারের দুই ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে, রাজবাড়ী জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই ফেরদৌসকে।অপরদিকে, রবিউল হত্যা এবং ওই হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকাবাসী রাজবাড়ী জেলার কালুখালী থানার এসআই ফজলুল হকসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্যকে আটকে রেখে মারপিট করে। তাদেরকে রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ওই ঘটনায় কালুখালী থানার এসআই সোহাগ সাহা বাদী হয়ে ২৯০ থেকে ৩০০ জন অজ্ঞাত আসামির বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা দায়ের করেছে।এদিকে, রবিবার দুপুরে নিহত রবিউলের বাড়ী পরিদর্শন এবং পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেছেন, ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জিহাদুল কবির। সে সময় রাজবাড়ী পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান পিপিএম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন, সহকারী পুলিশ সুপার লাবিব আব্দুল্লাহসহ জেলা পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এডিশনাল ডিআইজি জিহাদুল কবির বলেন, এই রবিউল হত্যাকান্ডের যারা জড়িত তারা কেউ রেহাই পাবে না। এদিকে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান রবিউল হত্যাকান্ডের বিচার যেন খুব তারাতারি হয় একটাই মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও এলাকাবাসির প্রত্যাশা।

আরও পড়ুন ঃরাজবাড়ী থেকে ডাকাতি হওয়া ১০ লাখ টাকার সিগারেট গাজীপুর থেকে উদ্ধার