আন্তর্জাতিক

কৃষ্ণসাগরে প্রাকৃতিক গ্যাসের খোঁজ পাওয়ার দাবি তুরস্কের

কৃষ্ণসাগর উপকূলে প্রাকৃতিক গ্যাসের বড় উৎস খুঁজে পেয়েছে তুরস্ক। এতে বাণিজ্যিকভাবে যখন গ্যাস উত্তোলন করা হবে, তখন তুরস্ককে আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে আনতে এ আবিষ্কার সহায়তা করবে।

বুধবার জ্বালানি কোম্পানির নির্বাহীদের সঙ্গে একটি বৈঠকে এ সম্পর্কিত একটি আভাস দিয়েছিলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।

আর শুক্রবার তিনি বলেন, খোদাই জাহাজ ফাতিহ কৃষ্ণসাগরে প্রাকৃতিক গ্যাসের সন্ধান পেয়েছে। প্রাথমিক হিসাবে এই গ্যাসের পরিমাণ ৩২০ বিলিয়ন ঘনমিটার হবে।

বিবিসি ও টিআরটির খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

এরদোগান বলেন, এই গ্যাস উত্তোলন ২০২৩ সাল নাগাদ শুরু হবে। তুরস্ক এ যাবতকালের মধ্যে সবচেয়ে বড় প্রাকৃতিক গ্যাসভাণ্ডার খুঁজে পেয়েছে।

ড্রিলিং জাহাজ ফাতিহ কৃষ্ণসাগরের পশ্চিমাঞ্চলে তুরস্কের উপকূলের প্রায় ১০০ নটিক্যাল মাইল উত্তরে ‘টুনা-ওয়ান’ এলাকায় অনুসন্ধান চালিয়ে একটি কূপ থেকে এই গ্যাস পেয়েছে।

এ ভাণ্ডার থেকে ২০ বছরের জন্য তুরস্কের গ্যাসের চাহিদা পূরণ হওয়া সম্ভব বলে মনে করা হচ্ছে।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট দ্রুতই এ গ্যাস উত্তোলন এবং ব্যবহারের আশা প্রকাশ করলেও জ্বলানি বিশেষজ্ঞরা অবশ্য বলছেন, এ কাজে এক দশক লেগে যেতে পারে এবং গ্যাসের বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য বিনিয়োগে শত শত কোটি ডলার ব্যয় হতে পারে।