আন্তর্জাতিক

গাড়িতে লিফটের নামে পোল্ট্রি খামারে নিয়ে গণধর্ষণ

গাড়িতে লিফ্ট দেওয়ার নাম করে ৩২ বছরের এক নারীকে গাড়িতে তুলেছিল সাত ব্যক্তি। তার পর ভিন্ন দু’টি জায়গায় নিয়ে গিয়ে তাকে গণধর্ষণ করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হিমাচল প্রদেশের কাঙরাতে। নির্যাতিতা নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশে করা অভিযোগে ওই নির্যাতিতা নারী জানিয়েছেন, বানই এলাকায় বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন তিনি। সে সময় অভিযুক্তরা তাকে লিফ্টের প্রস্তাব দিয়ে গাড়িতে তোলে। তার পর তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল একটি পোল্ট্রি খামারে। সেখানে তাকে গণধর্ষণ করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, ফার্ম থেকে নির্যাতিতাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ম্যাকলিয়ডগঞ্জের একটি হোটেলে। সেখানে ফের তার উপর ফের অত্যাচার চালানো হয়। সেখান থেকে কোনও মতে পালিয়ে গগল থানায় অভিযোগ জানান ওই নির্যাতিতা মহিলা। তারপরই মামলা দায়ের করে পুলিশ।

অভিযুক্তদের সকলকে গ্রেফতার করার খবর জানিয়েছে ভারতের পুলিশ। অভিযুক্তরা সকলেই আশেপাশের গ্রামের বাসিন্দা। ম্যাকলিয়ডগঞ্জের যে হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ওই নারীকে, তার মালিককেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ।পুলিশ জানিয়েছে, ওই নির্যাতিতা নারী তিন সন্তানের মা। তবে পাঁচ বছর ধরে স্বামীর থেকে আলাদা থাকেন।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।