Bangladesh

দিনাজপুরে হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ঘটনা

আজ বুধবার (০২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায় এ হাসপাতালে দিনাজপুরের ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভয়বহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেল শতাধিক রোগী ও তাদের স্বজনেরা।

এখন পর্যন্ত কোন প্রাণহানির খবর শোনা না গেকেও অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা সমমূল্যের ওষুধ নষ্ট হয়েছে বলে জানা গেছে।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের পাঁচটি ইউনিট প্রায় এক ঘণ্টা প্রচেষ্টার পর সন্ধ্যা ৭টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

আরো পড়ুনঃ নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হবে অষ্টম শ্রেণির মূল্যায়নঃ শিক্ষা মন্ত্রণালয়

একই সাথে অগ্নিকান্ডের ঘটনার পরপরই ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে এসে ভেতরে আটকে পড়া হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভর্তি ৮৪ জন রোগী এবং রোগির অর্ধশতাধিক স্বজনসহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং স্বেচ্চাসেবকদের নিচে সরিয়ে আনতে সক্ষম হয়। এরপর উদ্ধার ৮৪জন রোগীকে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

হাসপাতালের ত্বত্ত্বাবধায় ডা, আব্দুল আহাদ আলী জানায়, হাসপাতালের পরিত্যক্ত আসবাবপত্র স্টোর রুম থেকেই প্রথমে আগ্নিকাণ্ড ছড়িয়ে পড়ে। ধারণা করা হচ্ছে, করোনা রোগিদের জন্য ওয়ার্ড প্রস্তুতির সময় শ্রমিকদের কেউ অসাবধানতা বশত সিগারেটের অবশিষ্ট অংশ আগুন পরিত্যক্ত আসবাবপত্র স্টোর রুমে ফেলে দেয়। ধারণা হচ্ছে সেখান থেকেই আগুনের সুত্রপাত।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো.আহাদ আলী, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজন সরকার তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক আনিসুর রহমান জানান, “আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রাায় ৮৪ জন রোগীকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়। আমাদের পাঁচটি ইউনিট প্রায় এক ঘণ্টা প্রচেষ্টার পর সন্ধ্যা ৭টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি। তবে আগুন লাগার কারণ এখনো জানা সম্ভব হয়নি।”