সুয়ারেজ
Football খেলাধুলা

জুভেন্টাসে যাচ্ছেন সুয়ারেজ

পেশাদার ফুটবলের জীবনটা তো এমনই! কত কিছুই না ঘটে এখানে। একটা সময় ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ছিলেন রিয়াল মাদ্রিদে। বার্সেলোনার হয়ে কত ম্যাচেই না এই রোনালদোর সঙ্গে লড়াই হয়েছে লুইস সুয়ারেজের। ‘বন্ধু’ লিওনেল মেসিকে নিয়ে ‘শত্রু’ রোনালদোর মোকাবেলা করেছেন সবটুকু শক্তি নিংড়ে।

মাঠের সেই ‘জাত শত্রু’ই এবার বন্ধু হয়ে যাচ্ছেন সুয়ারেজের। মেসিদের ক্লাব ফেলে রেখে যে এখন রোনালদোর ঘরে বসতি গড়তে যাচ্ছেন উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার! জুভেন্টাসের সঙ্গে তার চুক্তি এক প্রকার নিশ্চিত।

আরও পড়ুনঃ মেসির ভাগ্য নির্ধারণে বৈঠক আজ

ইতালিয়ান ট্রান্সফার এক্সপার্ট জিয়ানলুকা ডি মার্জিওর দাবি, লুইস সুয়ারেজ আর জুভেন্টাসের মধ্যে মৌখিক চুক্তি হয়ে গেছে ইতিমধ্যে। এখন শুধু আনুষ্ঠানিকতা বাকি। বার্সেলোনার সঙ্গে কথা বলে পরের ধাপটা শেষ করা হবে।

বার্সার সঙ্গে দর কষাকষির ব্যাপার আসছে, কারণ সুয়ারেজের সেখানে এখনও এক বছরের চুক্তি বাকি আছে। তবে নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান দায়িত্ব নেয়ার পর এক মিনিটের ফোন কলেই ‘সাবেক’ বানিয়ে দিয়েছেন উরুগুইয়ান তারকাকে। জানিয়ে দিয়েছেন, তুমি আমার পরিকল্পনায় নেই।

এখন প্রশ্ন হলো, সুয়ারেজ কি ফ্রিতেই জুভেন্টাসে চলে যেতে পারবেন নাকি রিলিজ ক্লজ লাগবে? যেহেতু তিনি নিজে বার্সা ছাড়তে চাননি, ক্লাবই ছেড়ে যেতে বাধ্য করছে। তাই উল্টো ক্লাবের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারেন সুয়ারেজ।

তবে বার্সা যদি সুয়ারেজকে ছেড়ে না দেয়, তবেই বাঁধবে ঝামেলা। ন্যু ক্যাম্পে আরও এক বছরের চুক্তি আছে উরুগুইয়ান স্ট্রাইকারের। যেহেতু নতুন কোচের পরিকল্পনায় নেই, তাই বার্সায় থেকে গেলেও হয়তো একাদশে জায়গা মিলবে না তার।

এদিকে জুভেন্টাসেরও দলে একজন স্ট্রাইকার দরকার। চলতি মৌসুম শেষে গঞ্জালো হিগুয়েনকে বিদায় করে দিয়েছে তারা। সেই জায়গা পূরণেই সুয়ারেজকে চাচ্ছে জুভরা।

ইতালিয়ান দৈনিক লা গেজেত্তা দেল্লা স্পোর্তের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সুয়ারেজ ও জুভেন্টাসের প্রতিনিধিরা এরই মধ্যে দুবার আলাপ করেছেন। চুক্তি পাকা করতে জুভেন্টাসের বর্তমান স্পোর্টস ডিরেক্টর পাভেল নেদভেদের সঙ্গেও ফোনে কথা বলেছেন সুয়ারেজ।

জুভেন্টাসের সঙ্গে চুক্তি হলে কর কেটে রেখে প্রতি মৌসুমে ১০ মিলিয়ন ইউরো বেতন পাবেন সুয়ারেজ। বর্তমানে বার্সাতেও একই বেতন পান ৩৩ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড।