অপরাধ

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে এক দম্পতিকে উচ্ছেদের অভিযোগ



গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামে এক দম্পতিকে বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। উচ্ছেদকারীদের মারধরে গুরুতর আহত স্বামী ‍সুজন মিয়া ও স্ত্রী আয়শা বেগম পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

উচ্ছেদের অভিযোগ্র এখন পর্যন্ত ৪ জনকে অভিযুক্ত করে স্বামী সুজন মিয়া পলাশবাড়ী থানায় অভিযোগ দাখিল করেছেন।

সুজন মিয়া তার লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন, “গত ১লা সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বিকেল ৫ টার দিকে অভিযুক্ত একই গ্রামের বিবাদী মোঃ লিটন মিয়া (৫০), মোঃ ডিপটি মিয়া,মোছাঃ মাহমুদা বেগম (৪০),মোছাঃ মঞ্জুয়ারা বেগম গং-দের সাথে সুজন মিয়া গং-দের জমি জমা সংক্রান্ত বিবাদে সংঘবদ্ধ হয়ে এসে ঘরবাড়ি অন্যত্র সরিয়া নেয়ার জন্য চাপসৃষ্টিসহ আমাকে ও আমার স্ত্রী আয়শা বেগমকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। গালাগালি করতে নিষেধ করলে লিটন গং-রা আমাকে মেরে জখম করে।”



তিনি আরো বলেন, “এসময় তারা আমার কাছে থাকা মোবাইল ফোনটি কেড়ে নেয় এবং হত্যার উদ্দেশ্যে গলা চেপে ধরে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে সুজনের গর্ভবতী স্ত্রী আয়শা বেগমের পেটে লাথি মেরে আহত করে।”

আহতদের আত্ম-চিৎকারে লোকজন ছুটে এলে অভিযুক্তরা দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এ সময় সুজনের পরিবারের লোকজনদের বসত বাড়িতে বসবাস করতে দিবে না এবং ঘরবাড়ি থেকে উচ্ছেদ করবে ও আসবে বলে হুমকি প্রদান করে বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবারটি দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আরো পড়ুনঃ হ্যাকিংয়ের শিকার মোদির ব্যক্তিগত টুইটার অ্যাকাউন্ট