আন্তর্জাতিক

ধর্ষণের অভিযোগ তোলা সেই মার্কিন নারীকে পাকিস্তান ছাড়ার নির্দেশ

পাকিস্তানের সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তোলা মার্কিন নারী ব্লগার সিন্থিয়া রিচি’র ভিসার আবেদন নাকচ করে দিয়েছে দেশটির উচ্চ আদালত। একইসঙ্গে তাকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে দেশ ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বুধবার রেডিও পাকিস্তান এক প্রতিবেদন থেকে এ খবর জানা গেছে।

পাকিস্তানের উচ্চ আদালত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কাছে সিন্থিয়ার ইস্যুতে সরকার কি সিদ্ধান্ত নেবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিতে বলার পর সিন্থিয়াকে এ নির্দেশনা দেয়া হলো।

আরও পড়ুনঃ দেহরক্ষী থেকে প্রেমিকা হওয়া সেই নারীর পদ ফিরিয়ে দিলেন থাই রাজা

গত ৫ আগস্ট এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে ৩ সপ্তাহের সময় বেধে দেন আদালত। বর্তমানে সিন্থিয়া বাণিজ্যিক ভিসায় পাকিস্তানে অবস্থান করছেন। ওই ভিসার মেয়াদ শেষ হতে আর ১৫ দিন বাকি রয়েছে। এর মধ্যেই তাকে পাকিস্তান ছাড়তে বলা হয়েছে। যদিও এর আগে তিনি বাণিজ্যিক ভিসা পাওয়ার শর্ত ভঙ্গ করেছেন বলে আদালত মন্তব্য করেছেন।

এর আগে এ বছরের জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে মার্কিন এই নারী ব্লগার দাবি করেন, ইসলামাবাদে প্রেসিডেন্ট হাউসে ২০১১ সালে তাকে ধর্ষণ করেন পাকিস্তানের তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রহমান মালিক।

এক ফেসবুক পোস্টে সিন্থিয়া জানান, ওইদিন তাকে প্রেসিডেন্ট ভবনে ডাকা হলে তিনি ভেবেছিলেন ভিসা জটিলতার বিষয়ে কথা বলতে ডাকা হয়েছে। কিন্তু সেখানে যাওয়ার পর তাকে ঘুমের ওষুধ মেশানো পানীয় খাইয়ে ধর্ষণ করেন রহমান মালিক। তখন পাকিস্তানে পিপিপি রাষ্ট্রক্ষমতায় ছিল। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি এবং প্রাক্তন মন্ত্রী মখদুম সাহাবুদ্দিন তার গায়ে হাত তোলেন বলেও দাবি করেছেন সিন্থিয়া। নিরপেক্ষ তদন্ত হলে, যাবতীয় তথ্যপ্রমাণ তুলে ধরবেন বলে জানান তিনি।