Football খেলাধুলা

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে জার্মানির সাথে স্পেনের ড্র

করোনা বিরতির উয়েফা নেশনস লিগের গ্রুপ ফোরের প্রথম ম্যাচের মাধ্যমে আবারও পর্দা উঠেছে আন্তর্জাতিক ফুটবলের। ম্যাচের একদম শেষ মুহূর্তের গোলে জার্মানিকে জয়বঞ্চিত করল স্পেন। নির্ধারিত সময় পর্যন্ত এগিয়ে থাকা জার্মানদের বিপক্ষে যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে লক্ষ্যভেদ করে ম্যাচ ১-১ গোলে সমতা ফেরান স্প্যানিশ লেফট-ব্যাক হোসে গায়া।

বৃহস্পতিবার (০৩ সেপ্টেম্বর) রাতে স্টুটগার্ডে উয়েফা ন্যাশনস লিগের গ্রুপ-৪ এর ম্যাচটি দিয়ে স্পেন জাতীয় দলের কোচ হিসেবে নিজের দ্বিতীয় অধ্যায় শুরু করেন লুইস এনরিক। তবে তার এই পুনরায় শুরুর পথে কাঁটা বিছিয়ে দিয়েছিলেন টিমো ভার্নার। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে গোল করে বসেনে এই জার্মান স্ট্রাইকার। তবে গায়ার শেষ মুহূর্তের গোলে এক পয়েন্ট নিয়ে বাড়ি ফেরে স্প্যানিশরা।

দ্বিতীয়বার স্পেনের দায়িত্ব নিয়ে বেশ পরীক্ষানিরীক্ষা করেছেন এনরিকে। তরুণদের প্রাধান্য নিয়ে দল সাজিয়েছিলেন তিনি। এই সুযোগে অভিষেক হয়ে যায় ফেরান তোরেস ও রদ্রিগোর। ফুলব্যাক পজিশন থেকে রাইট উইংয়ে খেলেন হেসুস নাভাস। রদ্রির জায়গায় অবশ্য পুরনো সৈনিক সার্জিও বুসকেতসকেই খেলিয়েছেন এনরিকে।

আরো পড়ুনঃ অস্ত্রপচারের ১১ ঘণ্টা পর জ্ঞান ফিরেছে ইউএনও ওয়াহিদার

ম্যাচের শুরু থেকে নিয়ন্ত্রণে ছিল জার্মানরাই। তবে প্রথম গোলটা পেতে পারত স্পেনই। কিন্তু দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক গলে স্বাগতিক গোলরক্ষক কেভিন ট্র্যাপকে পরাস্ত করতে পারেননি তিনি। অন্যদিকে পোস্টের নিচে অদম্য ভূমিকায় ছিলেন দাভিদ দি গিয়া। শুরুর দিকেই লেরয় সানের দুর্দান্ত শট ডান দিকে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন তিনি।

জার্মানদের আগ্রাসী ফুটবলের সামনে শুরুতে দিশেহারা হয়ে গিয়েছিল স্পেন। ফলে একই পথে বেছে নিতে বাধ্য হয় এনরিকের শিষ্যরাও। গোলশূন্য প্রথমার্ধ শেষে নাভাসকে তুলে নিয়ে আনসু ফাতিকে নামান স্পেন বস। বার্সার তরুণ এই ফরোয়ার্ডের এটাই সিনিয়র দলে অভিষেক ম্যাচ। কিন্তু এর কিছুক্ষণ পরেই রবিন গোসেনসের ক্রসে লক্ষ্যভেদ করেন চেলসির নতিন সাইনিং ভেরেনার।  

দ্বিতীয়ার্ধে ভেরনারের গোলটা এসেছে ৫১ মিনিটে। গোল হজম করার পর বুসকেতসকে তুলে নিয়ে রিয়াল সোসিয়েদাদের মিকেল মেরিনোকে নামান এনরিকে। কিন্তু তাতেও খেলার মোড় জার্মানির দিকেই ঘুরে যায়। এর মধ্যে ভার্নার দ্বিতীয় গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া স্পেনও সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু ১৫ পাসে তৈরি হওয়া সুযোগ মিস করেন থিয়াগো।

শেষ মুহূর্তে ফের একবার নিজের বেঞ্চের দিকে নজর দেন এনরিকে। ফলাফল ফ্যাবিয়ান রুইজের জায়গায় নামে অস্কার। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই দুর্দান্ত হেডে সমতা ফেরানোর কাছে চলে গিয়েছিলেন ফাতি। কিন্তু রামোসের ফাউল সব ভেস্তে দেয়। অবশেষে যোগ করা সময়ে তোরেসের ক্রস থেকে গায়ার গোলে স্বস্তির সমতায় ফেরে স্পেন।

গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ইউক্রেনের মুখোমুখি হবে স্পেন, আগামী ৭ তারিখে। একই দিনে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলবে জার্মানি।