Bangladesh Rangpur

ওয়াহিদার ওপর হামলাকারী আসাদুল মাদকাসক্ত

নাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবাকে হত্যা চেষ্টা মামলার ২ আসামিকে তোলা হবে আদালতে। তবে প্রধান আসামি আসাদুল অসুস্থ থাকায়, র‌্যাবের পাহাড়ায় তাকে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। আসামিদের ৫ দিনের রিমান্ড চাওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে, সকালে আসামিদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে র‌্যাব-১৩।

ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলী শেখকে হত্যা চেষ্টা মামলার দুই আসামি নবিরুল ও সান্টুকে শনিবার দুপুরে দিনাজপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিশির কুমার বসুর আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করার কথা রয়েছে।

তবে মাদকাসক্তের বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে মামলার প্রধান আসামি আসাদুলকে শুক্রবার সন্ধ্যায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে র‌্যাব। বর্তমানে তিনি মেডিসিন বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে।


রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. দেবেন্দ্রনাথ বলেন, রোগী এমনিতে সুস্থ রয়েছেন। তিনি মাদকাসক্ত। তার কিছু পরীক্ষা দেয়া হয়েছে।

ওয়াহিদা খানম ও তার বাবাকে হত্যা চেষ্টা মামলার বাদী ফরিদ উদ্দিন, মামলার অগ্রগতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে দ্রুত প্রকৃত অপরাধীদের শাস্তির দাবি জানান।

মামলার বাদী শেখ ফরিদ উদ্দিন বলেন, মামলার তদন্ত করে যেন প্রকৃত সত্য উন্মোচন করা হয় এবং দোষীরা সাজা পায় সেই প্রত্যাশাই করব।

নওগাঁ

এদিকে, ওয়াহিদা খানমের ওপর হামলার প্রতিবাদে তার গ্রামে বাড়ি নওগাঁয় মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী। এতে বিভিন্ন সংগঠনসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেন।

তারা বলেন, আমরা এ হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। পাশাপাশি সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যাতে ইউএনওদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়।

প্রসঙ্গত, বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) রাতে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবনের ভেন্টিলেটর দিয়ে বাসায় ঢুকে ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলীর ওপর হাতুড়ি দিয়ে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা।