Bangladesh

সাড়ে ৭ হাজার টাকায় বিক্রি আড়াই কেজির ইলিশ

বরগুনায় বঙ্গোপসাগরে ধরা পড়েছে আড়াই কেজি ওজনের একটি ইলিশ। জেলেরা সাগর থেকে মাছটি ধরার পর জেলার পাথরঘাটা উপজেলায় অবস্থিত দেশের সবচেয়ে বড় মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে (বিএফডিসি) নিয়ে আসেন। পরে নিলামের মাধ্যমে সাড়ে ৭ হাজার টাকায় মাছটি বিক্রি করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ শুক্রবার সকালে বিএফডিসির খাজা ফিস আড়তে বিভিন্ন আকৃতির ইলিশের সঙ্গে মাছটি তোলা হয়। পরে নিলামের মাধ্যমে মাছটি কিনে নেন স্থানীয় আড়ৎদার ইউসুফ মিয়া।

তিনি জানান, সাধারণত এত বড় ইলিশ মাছ পাওয়া যায় না। এবার বড় আকৃতির ইলিশ ধরা পড়লেও সেগুলো এত বড় না। তার এক নিকট আত্মীয় দীর্ঘদিন ধরে তার কাছে এমন একটি বড় আকৃতির ইলিশ মাছ খেতে চেয়েছিলেন। তাই যখনই শুনেছে এমন একটি বড় মাছ ধরা পড়েছে, তাই আর দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে আড়তে চলে আসেন। পরে নিলামে সাড়ে ৭ হাজার টাকায় মাছটি কিনে নেন।

স্থানীয় মৎস্য ব্যবসায়ীরা জানান, বড় আকৃতির ইলিশের দাম চওড়া হয়। আগে বড় আকৃতির ইলিশের মন বিক্রি হতো দেড় লাখ টাকায়। এখন প্রচুর পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়ায় দাম একটু কম। তাই আড়াই কেজি ওজনের একটি ইলিশ মাত্র সাড়ে ৭ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। কিন্তু যদি মাছের সরবরাহ কম থাকতো, তাহলে এই মাছটিই কিনতে হতো ১০-১৫ হাজার টাকায়।

এদিকে আজ পাথারঘাটা মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে বড় (গ্রেড) সাইজের প্রতি মণ ইলিশ বিক্রি হয়েছে ৩৭-৩৮ হাজার টাকায়। এলসি সাইজের ইলিশ বিক্রি হয়ে প্রতি মণ ৩২-৩৩ হাজার টাকায়। আর ছোট সাইজের ইলিশের মণ বিক্রি হয়েছে ১৪-১৫ হাজার টাকায়। আর যেসব ইলিশের ওজন ২ কেজি বা তার বেশি সেগুলোর মণ বিক্রি হয়েছে এক থেকে এক লাখ ২০ হাজার টাকায়।

এ বিষয়ে পাথরঘাটা মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের মার্কেটিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ আহমদ উল্লাহ বলেন, গত এক সপ্তাহে এ মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রটিতে ইলিশ মাছ বিক্রি হয়েছে প্রায় ২০০ মেট্রিক টন। যা থেকে প্রায় ১২ লাখ টাকা রাজস্ব আয় করেছে সরকার।