আন্তর্জাতিক

টুইন টাওয়ার হামলার ১৯ বছর

১৯ বছর আগে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের টুইন টাওয়ারে আত্মঘাতী বিমান হামলা চালায় আল কায়েদা। একযোগে চালানো ৪টি আত্মঘাতী বিমান হামলায় প্রায় তিন হাজার মানুষ নিহত হয়।

বিশ্বে সন্ত্রাসী হামলার সবচেয়ে আলোচিত দিন। সেদিনের সে ভয়াল স্মৃতি আজো শিহরিত করে বেঁচে যাওয়া মানুষদের।

চারটি যাত্রীবাহী বিমান ছিনতাই করে এ হামলা চালানো হয় নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় সকাল ৯টায়। এরমধ্যে দুইটি বিমান ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের উত্তর ও দক্ষিণ টাওয়ারে আঘাত হানে। মুহূর্তেই ধ্বংস হয়ে যায় ভবন দুইটি। আরেকটি বিমান নিয়ে দেশটির প্রতিরক্ষা দপ্তরে হামলা চালায় জঙ্গিরা। চতুর্থ বিমানটি নিয়ে হামলা চালাতে চাইলেও যাত্রীদের প্রতিরোধের মুখে তা ব্যর্থ হয়। পেনসিলভেনিয়ার আকাশে ওই বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

আরো পড়ুনঃ করোনাকালীন ফুসফুস সুস্থ রাখবেন কীভাবে

ঘটনার পর থেকেই সারাবিশ্বে সন্ত্রাস ও ইসলামি জঙ্গি দমন অভিযানে নামে যুক্তরাষ্ট্র। আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে ২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে হত্যা করে মার্কিন বিশেষ বাহিনী ‘নেভি সিল’৷

আল কায়েদা অনেকটা দুর্বল হলেও বিশ্বজুড়ে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে একাধিক জঙ্গি সংগঠন। আফ্রিকায় বোকো হারাম, ইরাকের বড় অংশ জুড়ে রয়েছে আইএস। সিরিয়ায় বাশার আল আসাদ আর ইরাকে নুরি আল মালিকির সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরতদের সাথেও রয়েছে ইসলামি মৌলবাদী কর্মীরা।

নিউইয়র্কে সন্ত্রাসী হামলার স্থলে নির্মিত হয়েছে ন্যাশনাল সেপ্ট. ইলেভেন মেমোরিয়াল অ্যান্ড মিউজিয়াম। ১৯ বছর আগে নিহত, আহত এবং তাদের স্বজনের প্রতি শ্রদ্ধা ও সমবেদনা জানাবে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ।