Bangladesh Dhaka

রাজবাড়ীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রবিউল বিশ্বাস হত্যার প্রতিবাদ

রাজবাড়ীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রবিউল বিশ্বাস হত্যার প্রতিবাদ

তিন দফা দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার ঃ রাজবাড়ী জেলার অন্তর্গত কালুখালী উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা আছির উদ্দিন বিশ্বাসের সন্তান, কালুখালী উপজেলা যুবলীগ নেতা রবিউল বিশ্বাস কে গত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের দিনে পানিতে চুবিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা।

এই হত্যাকাণ্ডে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রবিউল বিশ্বাস হত্যা মামলার অন্যতম আসামী সোহেল মোল্লা রাজবাড়ী জেলা শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক।
প্রধান আসামী স্থানীয় ইউপি মেম্বার ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ইউছুপের নেতৃত্ব রবিউল বিশ্বাসকে নির্মমভাবে পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

রাজবাড়ীর ঘটনাসহ সমগ্র দেশে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওপর হামলা, মামলা ও নির্যাতনের সচিত্র প্রতিবেদনসহ খুব শীঘ্রই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নিকট স্মারকলিপি প্রদান করবে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। এভাবে প্রতিনিয়ত সমগ্র বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের হত্যা, নির্যাতন ও হামলা করা হচ্ছে যা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় কখনোই কাম্য নয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সুরক্ষা আইন থাকলে আজকে আমাদেরকে এরকম ন্যাক্কারজনক ঘটনাগুলো দেখতে হতো না। যে জাতি তার স্বাধীনতা আন্দোলনের বীরদের সম্মান দিতে জানে না, সেই জাতি কখনোই সফলকাম হতে পারে না। একাত্তরের পরাজিত অপশক্তির দোসররাই সম্প্রতি আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনগুলোতে অনুপ্রবেশ করে বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের ওপর একের পর এক হামলা, মামলা ও নির্যাতন করে যাচ্ছে।

স্থানীয় সাংসদ ও দলীয় শীর্ষ পদধারীরা নিজেদের গ্রুপ ভারী করার জন্য হাইব্রিডদের দলে এনে পদায়ন করছে যা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের পথে অন্তরায়। সর্বত্র হাইব্রিডদের জয়জয়কার। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষদেরকে কোণঠাসা করে রাখা হয়েছে। চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে হাইব্রিড মোস্তাফিজ এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ওপর হামলা করলেও আজ পর্যন্ত তার বিচার হয়নি।

আরও পড়ুুুুন ঃরাজবাড়ীর পাংশার বাহাদুরপুর বাজারে ৬৪৫ বস্তা চালের মালিকানা নিয়ে ধুম্রজাল

এভাবে দিন দিন বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের কণ্ঠ রোধ করে দেয়ার অপচেষ্টা চলছে। মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ তা কখনোই বরদাশত করবে না। স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি ও এদের আশ্রয়দাতাদেরকে রাজপথে দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিবে। বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের ওপর হামলা, মামলা ও নির্যাতন অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সুরক্ষা আইন প্রণয়ন করতে হবে। অন্যথায় সমগ্র দেশে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষদের সাথে নিয়ে কঠোর আন্দোলনে যাবে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ এর দাবিসমূহ:

১। বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রবিউল বিশ্বাসের হত্যাকাণ্ডে জড়িত সকলকে আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালে বিচার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

২। বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রবিউল বিশ্বাসের হত্যাকারীদের মদদ দাতাদের খুঁজে বের করে বিরুদ্ধে দলীয় ও আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।

৩। বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সুরক্ষা আইন প্রণয়ন করতে হবে।