Asia আন্তর্জাতিক

এবার ভারতের একাধিক ভূখণ্ড পাকিস্তানের মানচিত্রে

‘সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনে’র বৈঠক থেকে বেরিয়ে গেল ক্ষুব্ধ ভারত। বিষয়টির কড়া সমালোচনা করল পাকিস্তান। কিন্তু কেন বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে গেল ভারত?

‘সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনে’র সদস্য দেশগুলির আয়োজিত ‘ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইসার (এনএসএ)-র এই ভার্চুয়াল মিটিংটি অনুষ্ঠিত হল আজ (১৫ সেপ্টেম্বর)। সেই মিটিংয়ে পাকিস্তান তাদের দেশের যে নতুন ম্যাপটি তুলে ধরল তাতে দেখা গেল জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ এবং গুজরাতের কিছু অংশ অবলীলায় পাকিস্তানের সেই মানচিত্রে শোভা পাচ্ছে!

আরও পড়ুনঃ বলিউডের অশ্লীলতায় ধর্ষণের রাজধানী নয়াদিল্লি

প্রসঙ্গত উক্ত মানচিত্রটি পাকিস্তান গত মাসের ৪ তারিখে তৈরি করেছিল। যাই হোক, মিটিংয়ে পাকিস্তানের এরকম আচরণ স্বভাবতই ভাল ভাবে নেয়নি ভারত। তাই ভারত রেগেমেগে বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে গেলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। পাকিস্তানের এই আচরণকে ‘এক্সারসাইজ ইন পলিটিক্যাল অ্যাবসারডিটি’ বলে উল্লেখ করল নয়াদিল্লি।

এই ঘটনায় ভারতের পররাষ্ট্র মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, এনএসএ-র এই মিটিংয়ে পাকিস্তান ইচ্ছাকৃতভাবে একটি কাল্পনিক মানচিত্র তুলে ধরেছে। যে কোনও আলোচনার আসরে এই ধরনের কাজ তো মিটিংয়ের মূল লক্ষ্যটিকেই ব্যাহত করে। তা ছাড়া মিটিংয়ের হোস্টের পক্ষেও এটা বেশ অবমাননাকর ব্যাপার। যে অপমানের মুখোমুখি এ ক্ষেত্রে হল রাশিয়া।

ঘটনা হল, আসল মানচিত্র যা-ই হোক, আর পাকিস্তান যে মানচিত্রই বৈঠকে তুলে ধরুক তার তুল্যমূল্য বিচার নিয়ে পাকিস্তানের তরফে কোনও স্পষ্ট ও স্বচ্ছ বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে বৈঠক থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় ভারতকে সমালোচনা করতেও ছাড়েনি তারা। পাকিস্তান জানায়, যে-ফোরামের কাজই সহযোগিতার আবহ তৈরি করা সেই রকম একটি মঞ্চ থেকে ভারতের এই ভাবে বেরিয়ে যাওয়াটা বেশ বাজে একটা ব্যাপার।