Bangladesh Chattagram

গৃহবধূকে দল বেঁধে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেফতার

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নে গৃহবধূকে (৩২) দল বেঁধে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি দিদার হোসেনকে (৩০) চট্টগ্রাম বায়েজিদ বোস্তামি এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে মামলায় এক ইউপি সদস্যসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ মামলার মোট আসামি ১১ জন।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গ্রেফতারকৃতকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। দিদার হোসেন বীজবাগ ইউনিয়নের কাজীরখিল গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে।

আরো পড়ুনঃ খিচুড়ি রান্না শিখতে বিদেশে যাচ্ছেন এক হাজার সরকারি কর্মকর্তা!

পুলিশ জানায়, ওই গৃহবধূর সঙ্গে তার স্বামীর বিরোধ চলছিল। সেই বিরোধ মিটিয়ে দেয়ার কথা বলেছিলেন তার স্বামীর বন্ধু দিদার। বিরোধ মেটানোর কথা বলে ৫ সেপ্টেম্বর রাতে স্বামীর বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে ফেনী থেকে সেনবাগে নিয়ে আসে। রাত ১১টার দিকে দিদার কৌশলে গৃহবধূকে কাজীরখীল এলাকার নির্জন স্থানে নিয়ে তার চার সহযোগীসহ রাতভর ধর্ষণ করেন। ঘটনায় ১০ সেপ্টেম্বর ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে দিদার হোসেনকে প্রধান আসামি করে ১১ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে ইউপি সদস্য আবু বক্কর ছিদ্দিকসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সেনবাগ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইকবাল বাহার জানান, মুঠোফোনের প্রযুক্তি ব্যবহার করে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি দিদারকে বায়েজিদ বোস্তামি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে তাকে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের ৪নং আমলী আদালতের হাজির করলে নিজের দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন দিদার। মামলার অপর আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।