Asia আন্তর্জাতিক

বৈরুতের একটি শপিংমলে অগ্নিকাণ্ড

লেবাননের রাজধানী বৈরুতের একটি শপিংমলে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ৪ আগস্টের ভয়াবহ বিস্ফোরণে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয় বৈরুত। সাতদিনের ব্যবধানে সেখানে তৃতীয়বারের মতো অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো।

আগুন লাগার খবর পেয়ে তৎক্ষণাত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ফায়ার সার্ভিস। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই শপিংমলের ওপরের দিকের একাংশ পুড়ে যায়।

আরও পড়ুনঃ বলিউডের অশ্লীলতায় ধর্ষণের রাজধানী নয়াদিল্লি

হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। অগ্নিকাণ্ডের কারণও এখনো জানা যায়নি।

৪ আগস্ট বৈরুত বন্দরের একটি গুদামে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়। গুদামে মজুদ ছিল ২ হাজার ৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট। রাসায়নিক বিস্ফোরণে মারা যায় অন্তত ২০০ জন। আহত হয় ৬ হাজার মানুষ। বাস্তুচ্যুত হয় ৩ লাখ বাসিন্দা। ক্ষয়ক্ষতির আনুমানিক পরিমাণ ১ হাজার ৫০০ কোটি মার্কিন ডলার। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত চলছে।

গেলো সপ্তাহে শহরটিতে আরো দুটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে আতঙ্কিত, ক্ষুব্ধ বাসিন্দারা। রাজনীতিবিদদের দুর্নীতি, অবহেলা এবং অব্যবস্থাপনাকে এর জন্য দায়ী করেছেন তারা।

বিস্ফোরণের পর গেলো মঙ্গলবার প্রথম দফায় ছোট আকারে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। যা তৎক্ষণাত নেভাতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিস। পরে বৃহস্পতিবার জ্বালানি এবং টায়ারের গুদামে আগুন লাগে।

দীর্ঘদিন থেকে আর্থিক সংকটে ভুগছে লেবানন। করোনার হানায় আরো বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে দেশটির জনজীবন। এর মধ্যে আগস্টে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। মুদ্রার মান কমে যাওয়া, বেকারত্ব বৃদ্ধি, বহু মানুষকে দরিদ্রতার মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছে।