Bangladesh Barishal

ঘুষ নেয়ায় নারী মেম্বারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার শোলক ইউনিয়ন পরিষদের ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের নারী ইউপি সদস্য পার্বতী রানীর অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী।

বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা, প্রতিবন্ধীভাতা বরাদ্দের নামে ঘুষ নেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেন তারা। এ সময় এলাকাবাসী পার্বতী রানীকে ইউপি সদস্য পদ থেকে অপসারণ ও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

আরও পড়ুনঃ দেশে ঢুকতে শুরু করেছে ভারতীয় পেঁয়াজের ট্রাক

শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে শোলক গ্রামের তেঁতুলতলা এলাকা থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি গ্রামের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর সদস্যসহ গ্রামের লোকজন অংশ নেন।

ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর সদস্যরা জানান, বয়স্কভাতা পাইয়ে দেয়ার কথা বলে নারী ইউপি সদস্য পার্বতী রানী ও তার স্বামী দিলীপ কুমার দাস শোলক গ্রামের করিম সরদারের ছেলে রাজ্জাক সরদারের কাছ থেকে তিন হাজার টাকা নেন এবং আরও এক হাজার টাকা দাবি করেন। একইভাবে আলী হোসেন নামে এক প্রতিবন্ধীর কাছ থেকে দুই হাজার টাকা নেন। প্রতিবন্ধী ভাতা দেয়ার কথা বলে প্রতিবন্ধী আলী হাওলাদারের কাছ থেকে দুই হাজার ৫০০ টাকা নেন। একই এলাকার ইমান উদ্দিন সরদারের ছেলে সাহেব আলী সরদারের কাছ থেকে দুই হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। খলিল সরদারের কাছ থেকে দুই হাজার টাকা, মৃত সামসু খলিফার স্ত্রী জয়নব বেগমের কাছ থেকে ছয় হাজার টাকা, গোসাই চন্দ্র দাসের ছেলে নিপু চন্দ্র দাসের কাছ থেকে দুই হাজার টাকা হাতিয়ে নেন।

640.jpg

পার্বতী রানী ও তার স্বামী দিলীপ কুমার দাসের ঘুষের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেন যুগিহাটী গ্রামের বাসিন্দা কামাল হোসেন হাওলাদার ও লিটন সরদার। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দিলীপ দাস, ছেলে প্রদীপ দাস, সজীব দাস মিলে তাদের ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় শুক্রবার আহত কামাল হোসেন হাওলাদার বাদী হয়ে উজিরপুর মডেল থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

উজিরপুর থানা পুলিশের ওসি জিয়াউল আহসান জানান, যুগিহাটী গ্রামের বাসিন্দা কামাল হোসেন হাওলাদার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ঘটনা তদন্ত করে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।