বিনোদন

হইচইয়ে আসছে নতুন ওয়েব সিরিজ

হইচই প্রায় ৬০টি অরিজিনাল কনটেন্ট ও ৫০টি ডিজিটাল প্রিমিয়ার করার পর নতুন বছরের জন্য আরও ২৫টি নতুন অরিজিনাল কনটেন্ট এবং ২টি ‘ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শো’ (চলচ্চিত্রের ডিরেক্ট ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার) নিয়ে হাজির হচ্ছে।

হইচই কর্তৃপক্ষ জানায়, ওয়ার্ল্ড ডিজিটাল প্রিমিয়ারের অপেক্ষায় আছে ড্রাকুলা স্যার, কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন, প্রেম টা্ইম এরং গোলন্দাজ এর মতো মুভি। এই প্রতিশ্রুতি পূরণের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করবে হইচইয়ের ‘ড্রিম টিম’ যাতে যুক্ত আছেন অভিনয় শিল্পী চঞ্চল চৌধুরী, পার্থ বড়ুয়া, জিয়াউল ফারুক অপূর্ব, সানজিদা প্রীতি, ইন্তেখাব দিনার, মনোজ প্রামাণিক এবং নির্মাতা আশফাক নিপুণ, সৈয়দ আহমেদ শাওকি, সালেহ সোবহান অনিম, মিজানুর রহমান আরিয়ান, সৃজিত মুখার্জি, ধ্রুব ব্যানার্জি, কমলেশ্বর মুখার্জি, মিতালী ভট্টাচার্য প্রমুখ। এছাড়াও ফিরছেন তানিম নূর, কৃষ্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায়, দেবালয় ভট্টাচার্য, সাহানা দত্ত, কিউ, মৈনাক ভৌমিক, সৌমিক হালদার, সৌরভ চক্রবর্তী সহ আরো অনেকে।

আরও পড়ুন : কাশ্মীরিদের হত্যায় ফেঁসে যাচ্ছেন ভারতীয় সেনারা

স্বস্তিকা মূখার্জী, রাইমা সেন, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, অনির্বাণ ভট্টাচার্য সহ আরো অসংখ্য দর্শকপ্রিয় মুখ ফিরবেন নতুন প্রজেক্টের প্রধান চরিত্রগুলোতে।

হইচই এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিষ্ণু মোহতা বলেন, ‘বিগত তিনটি বছর ছিল আমার জীবনের প্রাপ্তির বছর। এই অল্প সময়ে আমরা এতদূর আসতে পেরেছি, তার জন্য আমরা গর্বিত। মার্চ থেকে যখন পৃথিবীজুড়ে লকডাউন চলছে, তখন আমরা অনুধাবন করি যে, বিনোদন এই মুহূর্তে আমাদের দর্শকদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। এ জন্য গত ছয় মাসে আমরা বেশ কিছু ওয়ার্ল্ড ডিজিটাল প্রিমিয়ার, অরিজিনাল শো এবং এর পাশাপাশি আমাদের নবতম সংযোজন ‘ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শো’ (চলচ্চিত্রের ডিরেক্ট টু ডিজিটাল প্রিমিয়ার) এর আয়োজন করি, যার মাধ্যমে আমাদের দর্শকরা নতুন ছবি সরাসরি হইচইয়ে দেখতে পেয়েছেন। জীবনযাপন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসার সঙ্গে সঙ্গে হইচই- এর চতুর্থ বছরে পা দিচ্ছে এবং আমরা আমাদের এযাবৎকালের সেরা কনটেন্ট লাইন আপ নিয়ে দর্শকদের সামনে আসছি। এর পাশাপাশি জিও ফাইবার এবং বাংলাদেশ ও মধ্যপ্রাচ্যের শীর্ষ টেলিকম প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে যোগ দিয়েছি যা আমাদের দর্শকদের সহজে হইচইয়ে সাবস্ক্রাইব করার সুযোগ তৈরি করে দেবে এবং তাদের আমাদের আরও কাছে নিয়ে আসবে। আমাদের এই উদ্যোগগুলো হইচইকে উন্নতির পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাবে এবং আমাদের লক্ষ্য – বাংলা ভাষাভাষীদের নিজ ভাষায় কাঙ্ক্ষিত বিনোদন দেওয়ায় সহায়ক হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।’

এসভিএফ এবং হইচইইয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মহেন্দ্র সোনি জানান, ‘আমি অবাক যে ২০১৬ সালের একটা ছোট্ট আইডিয়া আজ পৃথিবীজুড়ে ১ কোটি ৩০ লক্ষ সাবস্ক্রাইবারের সঙ্গে হইচইকে যুক্ত করেছে, যার রাজস্ব আয়ের শতকরা ৪০ ভাগই আন্তর্জাতিক। ২০১৭ সালে যখন আমরা যাত্রা শুরু করি তখন হইচইয়ের মাধ্যমে আমরা চমৎকার সব গল্প বলতে পারব, নতুন প্রতিভাদের সঙ্গে কাজ করতে পারব এবং এটা আমাদের সারা পৃথিবীর বাংলা ভাষাভাষীদের কাছে পৌঁছে দেবে এটাই ছিল আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা। আমরা ওয়ার্ল্ড ডিজিটাল প্রিমিয়ার, সাম্প্রতিক ব্লকবাস্টার এবং ক্লাসিক মুভির একট বিশাল সংগ্রহ গড়ে তুলেছি। আমরা শুরু করার পর থেকে ৬০টি অরিজিনাল শো লঞ্চ করেছি, যা গড়ে প্রতি মাসে প্রায় ২টি। ইতিমধ্যে আমরা বাংলাদেশের সেরা নির্মাতাদের সাথে কাজ করেছি এবং বাংলাদেশের মুভির ওয়ার্ল্ড ডিজিটাল প্রিমিয়ার ও ডিজিটাল প্রিমিয়ার করেছি। আসছে বছরটি হইচইয়ের ভিন্নধর্মী গল্প বলার প্রচেষ্টাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে বলে আমার বিশ্বাস। এটি সম্ভব করতে পারার জন্য আমি হইচই এবং এসভিএফের সবাইকে তাদের পরিশ্রম এবং উৎসর্জনের জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

640.jpg

আরও পড়ুন : কাশ্মীরিদের হত্যায় ফেঁসে যাচ্ছেন ভারতীয় সেনারা

সিজন ফোরে হইচইয়ের যে ২৫টি অরিজিনাল সিরিজ আসছে সেগুলো হচ্ছে – তকদীর, মানি হানি সিজন টু, ভালো থাকিস বাবা, হ্যালো সিজন থ্রি, মহাভারত মার্ডার্স, দেবদাস ও একটি খুনের গল্প, ঠাকুমার ঝুলি, রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেননি, ব্যোমকেশ সিজন সিক্স, দময়ন্তি, তানসেনের তানপুরা পার্ট টু, বন্য প্রেমের গল্প সিজন টু, ললিতা, লাল মাটি, রহস্য-রোমাঞ্চ সিরিজ সিজন থ্রি, সেই যে হলুদ পাখি সিজন টু, চৌরঙ্গী, মোহমায়া, গঙ্গা, একেনবাবু সিজন ফোর, মেকাপ স্টোরি, চরিত্রহীন সিজন থ্রি, গোরা, ইনটিউশন, মন্দার ইত্যাদি। এর সঙ্গে থাকছে ২টি ‘ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শো’ – কলকাতা আন্ডারগ্রাউন্ড ও টিকটিকি।

স্মার্টফোনের জন্য অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস অ্যাপ স্টোরে গিয়ে সহজেই ডাউনলোড করা যাবে হইচই অ্যাপ। ডেস্কটপ কিংবা ল্যাপটপ থেকে হইচই- এর কন্টেন্ট দেখা যাবে এই ওয়েবসাইটে গিয়ে। এ ছাড়া, ফায়ার টিভি, অ্যান্ড্রয়েড টিভি, অ্যাপল টিভি, ক্রোমকাস্ট, এমআই এলইডি টিভি, এলজি স্মার্ট টিভি, স্যামসাং স্মার্ট টিভি, রোকু প্রভৃতি ডিভাইসের মাধ্যমেও হইচই এর কনটেন্ট দেখা যাবে। বাংলাদেশ থেকে ক্রেডিট/ডেবিট কার্ড, বিকাশ, নগদ, রকেট সহ বেশ কিছু ডিজিটাল ওয়ালেটের মাধ্যমে হইচই-এ সাবস্ক্রাইব করা যায়।