Bangladesh

নওগাঁয় দোকান থেকে সরকারি ৪০ বস্তা চাল উদ্ধার

আমিনুল জুয়েল, নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁয় ফের সরকারি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল উদ্ধার করা হয়েছে। সদর উপজেলার একটি দোকান ঘরের তালা ভেঙে ৪০ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে উপজেলা প্রশাসন। মোট চালের পরিমাণ বারোশ’ কেজি।

গোপন সংবাদে মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টার দিকে ওই উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের মাদারমোল্লা বাজারের ব্যবসায়ী খলিলের দোকান থেকে চালগুলো উদ্ধার করা হয়। ব্যবসায়ী খলিল ইলশাবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা।

আরও পড়ুনঃ নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

জানা গেছে, সোমবার থেকে চন্ডিপুর ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির চাল কার্ডধারীদের মাঝে বিক্রি শুরু হয়। ইউনিয়নের মাদারমোল্লা বাজারের ডিলার রুহুল আমিন খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির চাল কার্ডধারীদের মাঝে বিক্রি করেন।
কিন্তু সুবিধাভোগীরা ১০ টাকা করে চাল উত্তোলন করার পর সেগুলি ব্যবসায়ী খলিলের কাছে বিক্রি করে দেন। খলিল চালগুলো কিনে তাঁর দোকানে মজুদ রাখেন। আজ সন্ধ্যায় গোপন সংবাদে উপজেলা প্রশাসন ঘটনাস্থলে যায়। এসময় ব্যবসায়ী খলিলকে বার বার ফোন দিয়েও সাড়া না মিললে তালা ভেঙে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৪০ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য (মেম্বার) দুলাল হোসেন বলেন, এখানকার ডিলার রুহুল আমিন। সোমবার থেকে তিনি চাল বিক্রি শুরু করেছেন। যারা কার্ডধারী তারা ডিলারের কাছ থেকে চাল কিনেছেন। পরে তাঁরা ব্যবসায়ী খলিলের কাছে চাল বিক্রি করে।

640.jpg

সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মোহাজের হোসেন বলেন, গোপন সংবাদে আমরা চালগুলো উদ্ধার করেছি। চালগুলো কোথায় থেকে এসেছে তা খতিয়ে দেখা হবে। আমরা অসহায়দের খাবারের জন্য চাল দিয়েছি, বিক্রির জন্য নয়। সরকারি চাল ক্রয় এবং অবৈধ মজুত দুই কাজই অপরাধ।

এ ব্যাপারে নওগাঁ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মির্জা ইমাম উদ্দিন বলেন, দোকান ঘর থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চালগুলো উদ্ধার করে ঘড়টি সিলগালা করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।