Bangladesh

উদ্বোধনের অপেক্ষায় দেশের সর্ববৃহৎ সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প

উদ্বোধনের অপেক্ষায় ময়মনসিংহে স্থাপিত দেশের সবচেয়ে বড় সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প। নগরীর পাশে ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে সুতিয়াখালিতে ৫০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের শেষ পর্যায়ের কাজ চলছে। আগামী মাসের শুরুতেই পরিবেশবান্ধব এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। উৎপাদন শুরু হলে জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে আরো ৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরের যৌথ উদ্যোগে এইচডিএফসি সিন-পাওয়ার লিমিটেড ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন র্বোড ময়মনসিংহ নগরীর পাশে ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে সুতিয়াখালিতে দেশের সবচে বড় সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র। ইতোমধ্যে অবকাঠামো নির্মাণ, এক বর্গ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে সোলার প্লেট বসানো, ১০টি বক্স ট্রান্সমিশনে সংযোগ প্রদান, সাব-স্টেশনসহ ১৩২ কেভিএ ট্রান্সমিশন টাওয়ার নির্মাণ, কেওয়াটখালীর জাতীয় গ্রীড উপকেন্দ্র পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার আন্ডার গ্রাউন্ড ক্যাবল স্থাপন এবং এক কিলোমিটার ওভারহেড ট্রান্সমিশন সঞ্চালন লাইন স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে। এখন ইকুইপমেন্ট টেস্টিং ও কমিশনিংয়ের শেষ মুহুর্তের কাজ চলছে।

ময়মনসিংহ ৫০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের উপ-পরিচালক লিউ ইফং বলেন, গত আগস্ট মাসে এই প্রকল্পের সকল ধরনের যন্ত্রপাতি বসানো কাজ শেষ হয়েছে। আশা করছি, অক্টোবরের মধ্যে এর বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হবে।

|আরো খবর : হেফাজতকে বদলে দেয়া দু’দিনের অভ্যুত্থানে পতন!

640.jpg

আগামী অক্টোবরের মাসের শুরুতেই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি উৎপাদনে যাবে বলে জানান প্রকল্প বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের এইচডিএফসি সিন-পাওয়ার লিমিটেডের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন শেখ মো. শফিকুল ইসলাম পিএসসি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর তারিখ ও সময় পাওয়া গেলে দ্রুতই আমরা উৎপাদনে যাবো।

২০১৮ সালের নভেম্বরে  ১৭৪ একর জমির উপর প্রায় ৮০০ কোটি টাকা ব্যয়ে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।