Hollywood বিনোদন

ক্যানসারের কাছে অবশেষে হার মানলেন রক কিংবদন্তি এডি ভ্যানহ্যালেন

প্রচণ্ড শক্তিমত্তার পরিচয় ছিল তার সুরে। তার বাজানো হারমনি, ফিঙ্গারিং আর বুদ্ধিমত্তা তাকে পৃথিবীর সবচেয়ে প্রভাবশালী গিটারিস্ট হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। এডি ভ্যান হ্যালেন পৃথিবীর রক গানের ইতিহাসে চিরস্মরণীয় এক নাম হয়ে থাকবে। 

দীর্ঘদিন ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে হার মানলেন এই রক গিটারিস্ট। তার ছেলে উলফ ভ্যান হ্যালেনকে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা এএফপি জানিয়েছে। এডি ৬৫ বছর বয়সে মারা যান।

টুইটারে একটি বার্তায় তার সন্তান উলফ ভ্যান হ্যালেন লেখেন ‘আমি বিশ্বাস করতে পারছি না আমাকে এটা লিখতে হচ্ছে, কিন্তু আমার বাবা,  এডওয়ার্ড লোডউইক ভ্যান হ্যালেন, সকালে ক্যানসারের সঙ্গে তার দীর্ঘ এবং কষ্টসাধ্য লড়াইয়ে হার মেনেছেন।’

দেলোয়ারের কত নেতা, আংগোরে মারি হালাইবো: নির্যাতিত নারী বাবা

সংগীতজ্ঞ ভ্যান হ্যালেন ছিলেন একাধারে গীতিকার, প্রযোজক ও উদ্ভাবনী গিটারিস্ট। ১৯৫৫ সালে নেদারল্যান্ডসে তার জন্ম। ১৯৭২ সালে আমেরিকান রক ব্যান্ড ‘ভ্যান হ্যালেন’র সহপ্রতিষ্ঠাতা তিনি। তার সঙ্গে ছিলেন তার ভাই ও ড্রামার অ্যালেক্স ভ্যান হ্যালেন, ব্যাসিস্ট মার্ক স্টোন ও গায়ক ডেভিড লি রোথ। দু’হাতে সমান তালে সোলো টেকনিকে গিটার ট্যাপিং করার জন্য তিনি অসম জনপ্রিয় ছিলেন।  

640.jpg

২০১২ সালে ‘গিটার ওয়ার্ল্ড’ ম্যাগাজিনের পাঠক জরিপে বিশ্বের সর্বকালের সেরা ১০০ গিটারিস্টের তালিকায় শীর্ষস্থান দখল করেন ভ্যান হ্যালেন। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।