সেইভ কুবি
Bangladesh Education

সেইভ কুবি-র ১২ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি দায়িত্ব নিল

স্টুডেন্টস এগেইনেস্ট ভায়োলেন্স এভরিহয়ার (সেইভ) কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়-র (কুবি) নতুন কমিটি দায়িত্ব নিল ২০২০-২১ সেশনের

প্রেস রিলিজ: কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ২০২০-২১ সেশনের স্টুডেন্টস এগেইনেস্ট ভায়োলেন্স এভরিহয়ার’ (সেইভ) চ্যাপ্টারের জন্য একটি নতুন কার্যনির্বাহী বোর্ড গঠন করা হয়েছে। জেনারেল সেক্রেটারি হিসেবে ২০১৭-১৮ সেশনের লোক প্রসাশন বিভাগের সাইয়েদা রোকেয়া এবং বাংলা বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের সুপন সুত্রধর আগামী এক বছরের জন্য ১২ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটির সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) বিকাল পাঁচটায় সেইভ আয়োজিত ‘সেইভ ইয়ুথ প্রেসিডেন্সিয়াল কমিটি’ শিরোনামে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল। ঘোষণা করেন সেইভ কুবি চ্যাপ্টার মডারেটর ও কুবি লোক প্রসাশন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কৃষ্ণা কুমার সাহা এবং একই বিভাগের প্রভাষক মিসকাত জাহান।

এ সময় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ব-নিযুক্ত মডারেটরগণ বারোটি চ্যাপ্টারের কমিটি ঘোষণা করেছিলেন।কমিটির অন্যান্যরা হলেন টিম লিড ইয়ুথ ডিজএবিলিটি এন্ড ইনক্লুশন মোঃ সাইদুর রহমান, টিম লিড ইয়ুথ এম্পয়ইএবিলিটি নাজমুল হক সাকিব, টিম লিড কানেক্টিং ডট’স জাহেদুল ইসলাম, টিম লিড ইভেন্ট এন্ড আউটরিচ ইয়ামিন আখন্দ, টিম লিড ইয়ুথ ভয়েস টিম মোঃ তাজুল ইসলাম, টিম লিড ইয়ুথ মিডিয়া আনিসুর রহমান , টিম লিড ক্যাম্পাস রেসিলিয়েন্স রাকিব হাসান, টিম লিড শি লিড’স ফারজানা মিম আশরাফি, টিম লিড ইয়ং মাইন্ড’স মহিউদ্দিন হাসান এবং টিম লিড ইয়ুথ ডেমোক্রাসি হিসেবে মেহেদী হাসান তানিম।

কমিটি ঘোষণার পর মনোনীত সকল সহ-সভাপতিরা শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। বক্তব্য রাখেন সেইভ ইয়ুথ বাংলাদেশ-এর ‘কান্ট্রি ডিরেক্টর’ সিলিয়া প্যাসিলিনা এবং ন্যাশনাল মডারেটর ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আইনুল ইসলাম।

640.jpg

উল্লেখ্য, সেইভ বাংলাদেশে ২০১৮ সালের অক্টোবরে কাজ শুরু করে। এটি তরুণদের জন্য একটি ভিন্নধর্মী প্লাটফর্ম যেখানে শান্তির প্রচার, সহিষ্ণুতা ও বৈচিত্র্যতার প্রতি সম্মান এবং গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ নিয়ে কাজ করে। এছাড়া সব ধরণের সংঘাতের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালিয়ে আসছে সেইভ।

সংগঠনটি শিক্ষার্থীদের নেতৃত্ব ও সক্ষমতা উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। আজ অবধি, সেইভের উদ্যোগে সারা দেশের বারোটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শতাধিক সেমিনার ও বিভিন্ন প্রোগ্রাম সম্পন্ন হয়েছে। এতে প্রায় ক হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী এতে অংশ নিয়েছিল। বর্তমানে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সেইভের ১২ (বারোটি) চ্যাপ্টার (কমিটি) কাজ করে যাচ্ছে।