Asia আন্তর্জাতিক

কাশ্মীরে এক জঙ্গির আত্মসমর্পণের নাটকীয় ভিডিও প্রকাশ

খালি গায়ে মাটি মাখা। পরনে ট্রাউজার্স। জীর্ণশীর্ণ যুবকের উদ্দেশে সেনা অফিসার বলছেন, ‘চলে আয়! কেউ গুলি চালাবে না।’ জঙ্গি দলে সদ্য নাম লেখানো কাশ্মীরের এক যুবকের আত্মসমর্পণের এমনই এক নাটকীয় ভিডিও প্রকাশ করল ভারতীয় সেনা বাহিনী।

এক ফলের বাগানে লুকিয়েছিল ওই জঙ্গি। সদ্য ২০ বছরে পা রাখা যুবকটি কয়েক দিন আগেই জঙ্গি দলে নাম লিখিয়েছিল। তার কাছ থেকে একটি একে-৪৭ উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার যৌথ বাহিনীর অভিযানের সময় ওই জঙ্গির সন্ধান মেলে। ভিডিওতে দেখা গেছে বন্দুক হাতে এক সেনা অফিসারকে। কিছুক্ষণ পরে বাগানের ভিতর থেকে দু’হাত উপরে তুলে এগিয়ে আসতে দেখা যায় তরুণ ওই জঙ্গিকে। সেই সময় সেনা অফিসারকে উপস্থিত বাকি সেনাকর্মীদের উদ্দেশে বলতে শোনা যায়, ‘কেউ গুলি চালাবে না।’

পাক মেজরের কবর পুনর্নির্মাণ করল ভারতীয় সেনা

সেই সঙ্গে জাহাঙ্গীর ভাট নামের সেই জঙ্গির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘তোমার কিছু হবে না বেটা।’ পরে তিনি ওই জঙ্গিকে পানি দেওয়ারও নির্দেশ দেন। জঙ্গির আত্মসমর্পণ করার ওই ভিডিও ভারতীয় সেনাবাহিনীর যে সংবেদনশীল মানবিক রূপ ফুটে উঠেছে তা মুগ্ধ করেছে সকলকে।

সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জাহাঙ্গীর গত ১৩ অক্টোবর থেকে নিরুদ্দেশ ছিল। তার পরিবার তাকে খুঁজছিল। একই দিনে দু’টি একে-৪৭ নিয়ে এক স্পেশাল পুলিশ অফিসারও পলাতক হন। অবশেষে সেনার যৌথ অভিযানে সন্ধান মেলে জাহাঙ্গীরের। নিয়ম মেনে প্রথমে তাকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। জাহাঙ্গীর আত্মসমর্পণ করতে রাজি হয়। দু’হাত তুলে এগিয়ে আসে সেনা সদস্যদের দিকে।

640.jpg

ভারতীয় সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে আরও একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে দেখা গেছে, জাহাঙ্গীরের বাবাকে। তার ছেলেকে রক্ষা করার জন্য তিনি সেনা বাহিনীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তাকে বলতে শোনা যায়, “ওকে আবার জঙ্গিদের কাছে যেতে দেবেন না।” 

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন