America আন্তর্জাতিক

ফাউসিকে রেখে ট্রাম্পকে বিদায় করব: বাইডেন

একদিন আগেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আভাস দিয়েছিলেন যে, পুনর্নির্বাচিত হলে শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসিকে বরখাস্ত করবেন। এর জবাবে ফাউসিকে রেখে ট্রাম্পকেই বিদায় করে দেয়ার কথা বললেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। খবর নিউইয়র্ক পোস্টের।

রোববার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও অঙ্গরাজ্যের ক্লিভল্যান্ডে নির্বাচনী প্রচারে বক্তব্য দেয়ার সময় জো বাইডেন এসব কথা বলেন। ফাউসিকে নিয়ে ট্রাম্পের হুমকির জবাবে তিনি বলেন, আমার কাছে ভালো বুদ্ধি আছে। আমাকে নির্বাচিত করুন।

ফাউসিকে রেখে আমরা ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বিদায় করব। 

এর আগে এক টুইটে জো বাইডেন বলেন, ফাউসির মতো বিশেষজ্ঞের কথা ‍যিনি শুনবেন, তার মতো প্রেসিডেন্ট আমেরিকায় দরকার।  ডোনাল্ড ট্রাম্পের জনসভায় তার সমর্থকদের অধিকাংশই মাস্ক না পরে আসেন। অথচ এখনও করোনা মহামারী চলছে।  

১ নভেম্বর ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে এক নির্বাচনী সমাবেশে ট্রাম্প ফাউসিকে ছেঁটে ফেলার ইঙ্গিত দেন। বলেন, ফাউসি হোয়াইট হাউসে থাকবেন না। কোভিড-১৯ সংক্রান্ত মিডিয়া কাভারেজের সমালোচনা করেন তিনি। সেই সময় সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ‘ফাউসিকে বরখাস্ত করুন’ বলে চিৎকার করতে থাকে।

তখন ট্রাম্প বলেন, ‘আমাকে নির্বাচনের পর কিছু সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে দিন। আমি আপনাদের এ পরামর্শকে স্বাগত জানাই।’ 

ট্রাম্প আরও বলেন, ‘ফাউসি একজন দারুণ মানুষ, তবে উনি অনেক ভুল করেছেন।’

ফাউসিকে বরখাস্ত করতে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেয়া হুমকির কড়া সমালোচনা করেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও। স্থানীয় সময় সোমবার জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আটলান্টায় বাইডেনের প্রচারসভায় যোগ দেন ওবামা। 

তিনি ট্রাম্পের নির্বাচনী সমাবেশকে কোভিড সংক্রমণের ক্ষেত্র হিসেবে উল্লেখ করেন। 

নিরাপত্তার চেয়ে সমাবেশে বেশি মানুষের উপস্থিতিকে ট্রাম্প গুরুত্ব দিচ্ছেন বলে অভিযোগ তোলেন।

ওবামা আরও বলেন, ফাউসি ট্রাম্প প্রশাসনের অল্প কয়েকজনের মধ্যে একজন, যিনি করোনা মহামারীকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছেন। অথচ পুনর্নির্বাচিত হলে ট্রাম্প ফাউসিকে বরখাস্ত করার হুমকি দিয়েছেন।

ওবামা অভিযোগ করে বলেন, সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করার কোনো চেষ্টা ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে করা হবে না বলেই জানিয়ে দেয়া হয়েছে। জর্জিয়াবাসীকে তিনি সতর্ক করে বলেন, ট্রাম্প প্রশাসন আরও কত খারাপ হতে পারে, তা এখনও দেখার অপেক্ষায়!

এর আগে শনিবার ওয়াশিংটন পোস্টকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ফাউসি করোনা মোকাবেলায় ট্রাম্প প্রশাসনের কড়া সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ট্রাম্প প্রশাসন কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সিরিয়াস ছিল না। তার এ বক্তব্য ঘিরে তুমুল বিতর্কের মধ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্প এ কথা বলেন।

করোনা মহামারী শুরুর দিকে ট্রাম্প ও ফাউসি সমন্বয়ের ভিত্তিতে কাজ করছেন বলে মনে হলেও ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্কের অবনতি হতে থাকে। ফাউসি এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি আর প্রেসিডেন্টের হয়ে ব্রিফ করেন না। তার জায়গায় এখন ডা. স্কট অ্যাটলাস ব্রিফ করেন।
 
যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মঙ্গলবার সকাল ১০টা পর্যন্ত ২ লাখ ৩৬ হাজার ৯৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ৯৫ লাখ ৬৭ হাজার ৫৪৩ জন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬১ লাখ ৭১ হাজার ৪০২ জন।

এই সংক্রমণ পরিস্থিতিতেও যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ ভোট দিতে যাবেন।  মহামারীর কারণে এবার যুক্তরাষ্ট্রের বেশিরভাগ মানুষ আগাম ভোট দিয়েছেন।

করোনার কারণে এবারের নির্বাচনী প্রচারে ট্রাম্প ও বাইডেনের সঙ্গে আলোচনায় ছিলেন ফাউসি।