Bangladesh Dhaka

আব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের দূর্বৃত্তপনা ও চাঁদাবাজি

আব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের দূর্বৃত্তপনা ও চাঁদাবাজি

স্টাফ রিপোর্টার
রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস একজন চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসবাদ, জুলুমবাজ ,দূর্বৃত্তপনাবাজ।আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস পাট্টা ইউনিয়ন শাষণ করছেন নিজের ইচ্ছা মতো।
শালিসের নামে চাঁদাবাজি, সরকারি জমি দখল করে বিলাস বহুল বাড়ি নির্মান।
সরকারি প্রতিষ্ঠানের সম্পদ /সম্পত্তি নিজ সম্পদে পরিনত করা সহ টাকার বিনিময়ে বি এন পিকে আওয়ামীলীগ তৈরির মেশিন আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস।আব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের আছে বিশাল এক সন্ত্রাস বাহিনি যাদের মাধ্যেমে সে তার সকল অপকর্ম ও অন্যায় কাজ সফল ভাবে করতে পারেন।
আব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের সন্ত্রাস বাহিনির অন্যতম সদস্যদের তালিকা১,আব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের বডিগার্ড রবিউল ইসলাম,২,হারুণ,৩,সোহাগ,৪,হান্নান,৫আব্দুল হালিম,৬,মাসুম বিল্লাহ, ৭,জিন্না।সহ অনেকে।আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস দূর্বৃত্তপনায় খুব পারদর্শী।
তার দূর্বৃত্তপনার শীকার হয়েছেন পাট্টা ইউনিয়নের অসংখ্য সাধারণ জনগণ সহ মোঃ বরকত,পাট্টা,মজিরব মাস্টার,খামারডাঙ্গি, মোঃ নাদের খামারডাঙ্গি, ছিন্টু বিশ্বাস,বয়রাট,রতন পাল জোনাপাট্টা, আব্দুর রব,মুছিদাহ,। গত ০৬/১১/২০২০ ইং তারিখে মোঃ রাজদুল মন্ডল, পিতা মোঃ আবু বকর মন্ডল কে প্রাণ নাশের জন্য বয়রাট বাজার থেকে আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস ও তার সন্ত্রাস বাহিনি রবিউল ইসলাম,সোহাগ ও মাসুম বিল্লাহ ধারালো অস্ত্র সহ রাজদুল মন্ডলকে ধাওয়া করলে, রাজদুল মন্ডল জীবণ রক্ষার জন্য তার মোটর বাইকে চেপে পালানোর চেষ্টা করেন।

আরও পড়ুন ঃআব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের পাট্টা শাষণ
আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস ও তার সন্ত্রাস বাহিনি দুই কিলোমিটার পথ ধাওয়া করে পাট্টা বাজার পর্যন্ত নিয়ে আসলে রাজদুল মন্ডল বাজারের দোকানে আত্বগোপন হয়ে পড়েন, পরিবেশ স্বাভাবিক হলে সে পাংশা মডেল থানায় উপস্থিত হয়ে আব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের বিরুদ্ধে জিডি করেন।বিবাদি আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস পাংশা মডেল থানা জিডি নং (২২৬)।
এছাড়াও বর্তমানে তিনি বিভিন্ন ভাবে তার সন্ত্রাসি বাহিনি দিয়ে চাঁদাবাজি, দূর্বৃত্তপনা সহ বিভিন্ন অপকর্মে মেতে উঠেছেন।আব্দুর রব মুনা বিশ্বাসের এমন দূর্বৃত্তপনা যদি এভাবে বাড়তে থাকে তাহলে পাট্টা ইউনিয়নে সাধারণ জনগণের বসবাসের জন্যে অনউপযোগী হয়ে উঠবে।।