জাতীয়

শীতের আগমন কমছে তাপমাত্রা চলেই এল শীতকাল

শীতের আগমন কমছে তাপমাত্রা, চলেই এল শীতকাল ।শরীরের টান টান শুষ্ক ভাব ভাব বলে দিচ্ছে শীতকাল প্রায় সমাগত।

চলতি মাস থেকেই শীতের আগমনী বার্তা পাওয়া গেলেও ধীরে ধীরে কমে আসছে দেশের প্রায় সব জায়গার তাপমাত্রা।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, শনিবার (৭ নভেম্বর) সকাল পর্যন্ত সারাদেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে। এদিকে লঘুচাপের বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। আগামী ৭২ ঘন্টায় বা ৩ দিন আবহাওয়া পরিস্থিতির সামান্য পরিবর্তন হতে পারে।

শনিবার সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯৬ শতাংশ। এছাড়া দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে শ্রীমঙ্গলে ১৪ দশমিক ৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

শীতের আমেজ বোঝা যাচ্ছে রাজধানীতেও। ভোরে বাসা থেকে বের হলেই শীত অনুভূত হয়।

বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে শীতের আবহ কেটে গেলেও আগের মত গরম পড়ছে না। বর্তমান আবহাওয়ায় রাস্তা-ঘাটে চলাফেরা করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছে নগরবাসী।

গত দুদিন ধরে নগরবাসীর মনে প্রশ্ন, তবে কি শীত এসেই গেল?

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, হঠাৎ করেই যেন নগরীতে শীতের আমেজ শুরু হয়েছে।

ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা। কাঠফাটা গরম কমে গিয়ে এখন অবশ্য বিরাজ করছে নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়া।

না গরম, না ঠাণ্ডা এমন সুন্দর আবহাওয়ায় শহুরে মানুষের চলাফেরায়ও স্বাচ্ছন্দ্য ফিরেছে। কিছুদিন আগেও যেখানে ফ্যান-এসি ছাড়া চলতই না, সেখানে এখন কেউ কেউ রাতের বেলায় গায়ে জড়াচ্ছেন কাঁথা।

করোনার মধ্যেও দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা অনেক ভালো

এদিকে, শীতকে লক্ষ্য করে প্রস্তুতি নিচ্ছেন কাপড় ব্যবসায়ীরা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজধানীর বঙ্গবাজার, গুলিস্তানসহ বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীরা গত কয়েকদিন ধরে শীতের কাপড় মজুদ করতে শুরু করেছেন। টুকটাক বিক্রিও হচ্ছে। ঢাকার বাইরের বিভিন্ন জেলা থেকে গরম কাপড়ের চাহিদাপত্র আসছে বলে জানিয়েছেন পাইকারি ব্যবসায়ীরা।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে, চলতি মাসে দিন ও রাতের তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাবে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্য়ন্ত পূর্বাভাসে বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি লঘুচাপ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। শনিবার অস্থায়ীভাবে আকাশ মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল টেকনাফে ৩১দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন ছিল শ্রীমঙ্গলে ১৪ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শুক্রবার রাজধানী ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানীতে শনিবার ভোর ৬টায় তাপমাত্রা ছিল ১৯দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।