করোনা ফোকাস জাতীয়

২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ১৬৯৯ জন, ১৬ জনের মৃত্যু

মহামারি করোনা ভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ১৬৯৯ জন আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৬ হাজার ১০৮ জন। এ ছাড়া করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে আরও ১ হাজার ৬৯৯ জনের দেহে। এ নিয়ে মোট করোনায় আক্রান্ত হলো ৪ লাখ ২৩ হাজার ৬২০ জন করোনা রোগী।

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) বিকেলে করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংস্থার অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এ দিন সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬৪৮ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৪১ হাজার ৪১৬ জন।

মেজর সিনহা হত্যা: পরবর্তী শুনানি ১৩ ডিসেম্বর

এর আগে সোমবার (৯ নভেম্বর) দেশে আরও আরও ১ হাজার ৬৮৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে মারা যান আরও ২৫ জন।

এদিকে করোনাভাইরাসের দাপটে আবারও বিপর্যস্ত বিশ্বের অধিকাংশ দেশ। বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত ৫ কোটি ১২ লাখের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন সাড়ে ১২ লাখেরও বেশি। যুক্তরাষ্ট্রেই একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১ লাখ ১০ হাজার মানুষ। মারা গেছেন প্রায় সাড়ে পাঁচশ। এ অবস্থায় আবারও বিধি নিষেধ আরোপ করেছে হাঙ্গেরি পর্তুগালসহ বিভিন্ন দেশ।

করোনা আক্রান্ত ও মৃতের দিক দিয়ে এখনো শীর্ষে অবস্থান করছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রতিদিনই লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। মৃতের সংখ্যাও আবারও আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে।

ইসরাইলেও বেড়েছে সংক্রমণ। কোভিড নাইন্টিন শনাক্তে বিমানবন্দরসহ বিভিন্ন স্থানে ফাস্ট ট্র্যাক কোভিড শনাক্তকরণ বুথ স্থাপন করা হয়েছে।

করোনার দ্বিতীয় ধাক্কায় টালমাটাল ইউরোপের বিভিন্ন দেশ। হাঙ্গেরিতে মহামারি নিয়ন্ত্রণে নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী। ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় রাত ৮টা থেকে ভোর পাঁচটা পর্যন্ত দেশজুড়ে কারফিউ জারি করার কথা জানান তিনি। সন্ধ্যা ৭টার পর সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সর্বোচ্চ সীমা পৌঁছেছে বেলজিয়ামেও। সংক্রমণ ঠেকাতে এরইমধ্যে আবারও আংশিক লকডাউন ঘোষণা করেছে দেশটি।

সুইজারল্যান্ডেও করোনা পরিস্থিতি অবনতির দিকে। করোনা নিয়ন্ত্রণে পরীক্ষার ওপর জোর দিচ্ছে কর্তৃপক্ষ।

সংক্রমণ বাড়ায় পিসিআর টেস্টের পাশাপাশি নিঃশ্বাসের মাধ্যমে করোনা শনাক্ত করা যায় এমন পদ্ধতি আবিষ্কার করে তা প্রয়োগ করেছে সিঙ্গাপুর। মাত্র এক মিনিটেই জানা যাবে কেউ করোনা পজিটিভ কিনা।