জাতীয়

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ২০টি ঘোড়া,১০টি কুকুর উপহার

 

এম ওসমান, যশোর প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ২০টি ঘোড়া,১০টি কুকুর উপহার দিয়েছেন ভারতীয় সেনাবাহিনী। বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে এসব ঘোড়া ও কুকুর বাংলাদেশে আনা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) বেলা ১২ টার সময় ভারতের উত্তর প্রদেশের ১৭ পদাতিক সেনানিবাসের মেজর জেনারেল এন এস খুরুর বাংলাদেশ ৫৫ পদাতিক সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল হুমায়ুন কবিরের কাছে নো-ম্যান্সল্যান্ডে এসব ঘোড়া ও কুকুরগুলো আনুষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সাভার ক্যান্টনমেন্টে থেকে আসা কর্নেল বেলায়েত হোসেন বলেন, ভারতের উত্তর প্রদেশ সেনানিবাস থেকে ঘোড়া ও কুকুরগুলো প্রথমে কলকাতা সেনানিবাসে আনা হয়। পরে মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে পেট্রাপোল বিএসএফ ক্যাম্প থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কাছে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে হস্তান্তর করা হয়। চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে ৫০ টি ঘোড়া ভারতীয় সেনাবাহিনী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে উপহার হিসেবে দেবেন। তার প্রথম চালানের ২০ টি ঘোড়া আজ বাংলাদেশে আসল। ঘোড়া ও কুকুরগুলো সাভার ক্যান্টনমেন্ট নেয়া হবে।

 

 

 

 

বিপ টেস্টে অকৃতকার্য নাসির

 

বিপ টেস্টে অকৃতকার্য নাসির। ক্রিকেটারদের ফিটনেস টেস্টে নাসির অকৃতকার্য হলেন।

সামনেই বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ। এই আসরকে সামনে রেখে মিরপুরে চলছে ক্রিকেটারদের ফিটনেস টেস্ট। এই টেস্টে অকৃতকার্য হয়েছেন জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার নাসির হোসেন। দ্বিতীয় দিনের বিপ টেস্টে নাসিরের স্কোর মাত্র ৮.৫। যা এখনো পর্যন্ত এবারের বিপ টেস্টে সবচেয়ে কম স্কোর। বিপ টেস্টে পাশ না করায় এবারের বঙ্গবন্ধু কাপে খেলা হবে না নাসিরের।

নাসিরকে নিয়ে হতাশা প্রকাশ করে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু জানান, ‘এটা হতাশাজনক। এটা নিজের প্রতি অযত্নশীলতার কারণে। ওর থেকে বয়সে বড় অনেকেই পাশ করছে, কিন্তু সে পারছে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘যারা ফিটনেস টেস্টে পাশ করবে না তারা প্লেয়ার ড্রাফটে থাকবে না। তাদের তো ফিটনেসই নেই, খেলবে কি করে!’

 

সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই বিপ টেস্টের আজ দ্বিতীয় দিন। প্রথম দিন এ টেস্টের সম্মুখীন হন ৭১ জন ক্রিকেটার। এদিক সাকিব আল হাসানের টেস্ট দেওয়ার কথা থাকলেও, বিপ টেস্ট দেননি তিনি। আগামীকাল বিপ টেস্ট দেওয়ার কথা রয়েছে তার।

 

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের এবারের আসরে অংশ নিবে মোট পাঁচটি দল। ইতোমধ্যে দলগুলোর নামও ঘোষণা করেছে বিসিবি। খসড়া সূচি অনুযায়ী আগামী ২০ নভেম্বর থেকে মাঠে গড়ানোর কথা রয়েছে প্রতিযোগিতাটির। মোট ২৪ ম্যাচের প্রতিযোগিতাটির ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ ডিসেম্বর।