Bollywood বিনোদন

কামব্যাকের আগে বডি শেমিং নিয়ে সরব তনুশ্রী

কামব্যাকের আগে বডি শেমিং নিয়ে সরব তনুশ্রী । প্রায় বছর দশেক পর বলিউডে ফের কামব্যাক করতে চলেছেন একদা মিস ইউনিভার্স তনুশ্রী দত্ত । মেদবহুল চেহারার জন্য ‘বডি শেমিং’-এর শিকার হওয়ার কথাও এ বার ফাঁস করলেন বঙ্গ তনয়া।

পর্দায় ফেরার জন্য ১৫ কেজি ওজন ইতিমধ্যেই ঝড়িয়ে ফেলেছেন নায়িকা। মুম্বইয়ের এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তনুশ্রী বলেন, “বিগত কয়েক বছর যখন আমার ওজন বেড়ে গিয়েছিল, অনেকেই সেটা আমাকে ‘বডি শেমিং’ করার সুযোগ হিসেবে ধরে নিয়েছিলেন। কিছু মানুষজন খুবই ধূর্ত প্রকৃতির। আমি সেই কারণেই এমন অনেকের সামনে আসিনি যারা আমাকে মোটা বলতে পারে বা আমার ওজন নিয়ে কথা বলতে পারে। তাঁদের কথা আমাকে আঘাত দিতে পারে।”

সৌমিত্রের সফল অস্ত্রোপচার, দেওয়া হবে প্লাজমা

বরাবরের স্পষ্টভাষী তনুশ্রী ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তাঁর ওজন নিয়ে কটূক্তি করা মানুষদের উপর। তাঁর কথায়, “এই মানুষগুলো আদৌ আমাকে নিয়ে চিন্তিত নয়। আমাকে ছোট করার জন্য বা দুঃখ দেওয়ার জন্য তারা এ সব কথা বলে।”

শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন তনুশ্রী রীতিমত ডায়েট মেনে মেদ ঝরিয়ে ফিরেছেন অতীতের সেই চেনা চেহারায়। তবে নায়িকা জানান ওজন বাড়লেও তাঁর স্বাস্থ্যে তা কখনও প্রভাব ফেলতে পারেনি। শুধুমাত্র কাজের স্বার্থেই ওজন কমানোর সিদ্ধান্ত। ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে নতুন লুকের ছবি পোস্ট করে তাক লাগিয়েছেন তনুশ্রী। খুব শীঘ্রই তাঁকে দেখা যাবে বেশ কিছু ছবি এবং ওয়েব সিরিজে।

২০১৮ সালে বলিউডে মিটু ঝড় তিনিই নিয়ে এসেছিলেন। অজস্র বিতর্ক, দীর্ঘ বিরতির পর আবার স্বমহিমায় তিনি ফিরবেন রুপোলি পর্দায়। কোনও বাঁকা মন্তব্যও, কটূক্তি তাই আর তোয়াক্কা করছেন না তনুশ্রী। এখন লক্ষ্য শুধুই এগিয়ে যাওয়া।

তিনি বলেন, ‘এবার আমি আরও ভাল কাজ বাছাই করব। খারাপ অভিজ্ঞতা থেকে যা শিখেছি তা পরবর্তী কালে কাজে লাগাব। কেবল মেধাবী, নামী এবং ভাল মনোভাবের নির্দিষ্ট লোকদের সঙ্গেই শুধু কাজ করব’।

ইন্ডাস্ট্রির ‘এ-লিস্ট’-এর নির্মাতা বা অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তনুশ্রী। ২০০৫ সালে ‘চকোলেট’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বলিউডে অভিষেক ঘটে তনুশ্রী দত্তের। এরপর ‘আশিক বানায়া আপনে’, ‘রাকিব’, ‘ঢোল’, ‘রিস্ক’, ‘গুড বয়, ব্যাড বয়’, ‘স্পিড’র মতো সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। ইমরান হাশমির বিপরীতে ‘আশিক বানায়া আপনে’ সিনেমায় অভিনয় তাঁকে তুমুল জনপ্রিয়তা দেয়।