Cricket খেলাধুলা

ইংল্যান্ডের ক্ষেত্রে শর্ত শিথিল করল শ্রীলঙ্কা

ইংল্যান্ডের ক্ষেত্রে শর্ত শিথিল করল শ্রীলঙ্কা । বিসিবির অনুরোধের পরেও শ্রীলঙ্কা বোর্ড কোয়ারেন্টিনের কঠিন শর্ত শিথিল না করায় অক্টোবরে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজ স্থগিত হয়। অথচ সেই এসএলসি’ই এবার কোয়ারেন্টিন ছাড়া শ্রীলঙ্কায় ম্যাচ খেলতে অনুমতি দিচ্ছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলকে। জানুয়ারিতে দুই টেস্টের সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে গল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

আগামী জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কা সফরে যাচ্ছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল। এ খবর নিশ্চিত করেছে শ্রীলঙ্কান বোর্ড। তবে এ সফরে ইংল্যান্ডকে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না বলে জানায় বোর্ড।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মোহাম্মদ সালাহ

কিন্তু বাংলাদেশের জন্য ভিন্ন নিয়ম প্রয়োগ করেছিলো শ্রীলঙ্কান বোর্ড। গত অক্টোবরে টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা সফরে যাবার কথা ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। সব কিছু চূড়ান্ত হবার পর শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া কঠোর বিঁধি নিষেধের কারণে স্থগিত হয়ে যায় সিরিজটি। ইংল্যান্ডের ক্ষেত্রে শর্ত শিথিল করল শ্রীলঙ্কা ।

শ্রীলঙ্কান বোর্ড বাংলাদেশের জন্য বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকার নিয়ম বেঁধে দিয়েছিল। এ সময় তারা কোন প্রকার প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে পারবে না। এমনকি হোটেল থেকে বেরও হতে পারবে না বলে জানায় এসএলসি। তাদের এ ধরণের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

তিনি বলেন, পরবর্তীতে ৭ দিনের কোয়ারেন্টিন চেয়ে অনুরোধ করেছিলো বিসিবি। কিন্তু, সেই অনুরোধ মেনে নেয়নি শ্রীলঙ্কান বোর্ড। অথচ, আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য ইংল্যান্ড দলকে নাকি কোন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না বলে জানান বোর্ড সভাপতি।

এদিকে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা বলেন, শ্রীলঙ্কায় আসার আগেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন সেরে আসবে ইংল্যান্ড দল। ভাড়া করা উড়োজাহাজে করে তারা আসবে এবং প্রয়োজনীয় পিসিআর টেস্ট করে জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ ঢুকবে তারা।

এদিকে, ডিসেম্বরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। এই সফরেও শ্রীলঙ্কাকে বাধ্যতামূলক কোন কোয়ারেন্টিন পালন করতে হবে না বলে জানান এসএলসির প্রধান নির্বাহী।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা বলেন, শ্রীলঙ্কা দলকে দক্ষিণ আফ্রিকায় কোন কোয়ারেন্টিনের থাকতে হবে না। কারণ বেশিরভাগ খেলোয়াড় এলপিএলে অংশ নিচ্ছে। এটি শেষ হবে ১৬ ডিসেম্বর আর ভাড়া করা বিমানে দক্ষিণ আফ্রিকা যাবে ১৭ ডিসেম্বর। অর্থাৎ, এক জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ থেকে আরেক জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে পা রাখবে।

ইংল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা সিরিজের প্রথম টেস্ট ১৪ জানুয়ারি ও দ্বিতীয় টেস্ট ২৩ জানুয়ারি শুরু হবে। সিরিজের দুটি টেস্টই অনুষ্ঠিত হবে গল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।