Cricket খেলাধুলা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এর ট্রফি উন্মোচন

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২১ আসরের ট্রফি উন্মোচিত হয়েছে। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসরে অংশ নিবে মোট ১৬টি দেশ। পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ভারতেই বসবে সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটের বিশ্বকাপের এই আসর।

করোনার কারণে ভারতে এখনো প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট না ফিরলেও বিশ্বকাপ আয়োজনের ব্যাপারে আশাবাদী বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি। দুবাইয়ে ট্রফি উন্মোচনকালে সৌরভ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী মানু সোহনি ও বিসিসিআইয়ের সচিব জয় শাহ। বিগত আসরের ট্রফিগুলোর মতই নকশা করা হয়েছে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ট্রফির।

ইংল্যান্ডের ক্ষেত্রে শর্ত শিথিল করল শ্রীলঙ্কা

অস্ট্রেলিয়ায় এ বছরই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের কথা ছিল। ২০২১ সালে অর্থাৎ আগামী বছর ভারতে আরও একটি টি-টোয়েন্ট বিশ্বকাপও ছিল পূর্বপরিকল্পিত। করোনার কারণে ২০২০ বিশ্বকাপ স্থগিত হলেও ২০২১ ও ২০২২ সালে টানা দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মাঠে গড়াবে। অস্ট্রেলিয়ার স্থগিত হওয়া আসরটি মাঠে গড়াবে ২০২২ সালে।

২০২১ সালের অক্টোবর-নভেম্বর জুড়ে দলগুলো লড়বে বিশ্বকাপের লক্ষ্যে। ১৮ অক্টোবর শুরু আসরের ফাইনাল মাঠে গড়াবে ১৫ নভেম্বর। আইসিসির সদস্য দেশগুলোর পাশাপাশি সহযোগী দেশগুলোও অংশ নেবে এই বিশ্বকাপে।

২০২০ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর আইসিসি জানিয়েছিল, এ বছরের টুর্নামেন্টটা হবে আগামী বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে। পরের বছর (২০২২) একই সময় হবে আরও একটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। কোন কোন দেশ এই দুটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করবে, সেটি পরিষ্কার হলো আজ।

আজ এক সভায় আইসিসি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ২০২১ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারতে হবে। ভারতের অবশ্য আগে থেকেই ২০২১ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের কথা ছিল। গত মাসে আইসিসি যখন জানায়, এ বছরের টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপটা হবে আগামী বছর, তখনই ধোঁয়াশাটা তৈরি হয়। ভারত ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপেরও আয়োজক। এ বছরের টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ যদি আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় হয়, তাহলে পরপর দুই বছর ভারতের পক্ষে আইসিসির টুর্নামেন্ট আয়োজন ঝক্কির হয়। আইসিসি তাই আগামী বছর টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের ভার ভারতকেই দিচ্ছে।

২০২২ সালের অক্টোবর–নভেম্বরে টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করবে অস্ট্রেলিয়া, যেটির ফাইনাল হতে পারে ১৩ নভেম্বর। আর ভারতে হতে যাওয়া ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপ ফেব্রুয়ারি-মার্চ থেকে যে ওই বছর অক্টোবর–নভেম্বরে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে, সেটি আইসিসি জানিয়েছে আগেই।

আজকের সভায় আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হচ্ছে, মেয়েদের ২০২১ বিশ্বকাপও স্থগিত হয়েছে। টুর্নামেন্টটি নিউজিল্যান্ডে হওয়ার কথা ছিল আগামী বছর ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৭ মার্চ।