গাইবান্ধায় কালবৈশাখী ঝড়ে ৪ জনের মৃত্যু

124

জেলা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধায় কালবৈশাখী ঝড়ে ঘরবাড়ি-গাছপালা ভেঙে তিন নারীসহ চারজন নিহত হয়েছেন। রোববার বিকেলে জেলার সুন্দরগঞ্জ, পলাশবাড়ী ও ফুলছড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- পলাশবাড়ী উপজেলার বেতকাপা ইউনিয়নের মোস্তাফুর গ্রামের গোফফার রহমান ও ডাকেরপাড়া গ্রামের জাহানারা বেগম, সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নের দোয়ারা গ্রামের ছোলায়মান মিয়ার স্ত্রী ময়না বেগম এবং ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের কাতলামারি গ্রামের বিটুল মিয়ার স্ত্রী শিমুলী আক্তার।

ঝড়ে গাইবান্ধার সদর উপজেলাসহ বিভিন্ন উপজেলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। প্রচণ্ড গতির বাতাসে কাঁচা-পাকা ঘর ভেঙে পড়াসহ উড়ে গেছে টিনের চাল। এছাড়া আমের মুকুল, লিচু ও জমির আমন ধানের গাছসহ বিভিন্ন জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কোথাও কোথাও গাছ ভেঙে সড়কে পড়ায় যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, বিকেল পৌনে চারটা পর্যন্ত থেমে থেমে চলে ঝড়ো হাওয়া। সঙ্গে দমকা বাতাস ছিল। সেই সঙ্গে কোনো কোনো এলাকায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিও হয়েছে। বাতাসের পরপরই বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে বন্ধ রয়েছে বিদ্যুৎ সরবরাহ।

গাইবান্ধার ডিসি আব্দুল মতিন জানান, হঠাৎ বয়ে যাওয়া দমকা হাওয়ায় বিভিন্ন জায়গায় ঘরবাড়ি ও গাছপালা ভেঙে পড়াসহ ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া বাতাসে গাছ ভেঙে নারীসহ চারজন নিহত হয়েছেন। নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ১০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।