বিধবা মহিলার পাকা ঘর করে দিলেন ইউনুছ মাস্টার

45

বিধবা মহিলার পাকা ঘর করে দিলেন ইউনুছ মাস্টার

আবুল কালাম আজাদ, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী ইউনুছ আলী বিশ্বাস (মাস্টার) নিজ অর্থায়নে হতদরিদ্রদের মাঝে ঘর করে দিলেন। তিনি করোনাভাইরাস সচেতনতা মূলক প্রচার প্রচারণা ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ করে চলেছেন ইউনিয়ন ব্যাপী।

বুধবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে পাট্টা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের গোলাবাড়ি গ্রামের মৃত দরিদ্র কৃষক মোঃ মতিন মিয়ার স্ত্রী সখিনা খাতুনের পাকা ঘরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন ইউনুছ আলী বিশ্বাস (মাস্টার)। এসময় উপস্থিত ছিলেন, পাট্টা ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস, পাট্টা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক মেম্বার সামছুর রহমান, আশুরহাটের বাদশা মন্ডল, আজমল হোসেন, রাজা, বিল্লাল হোসেন ও সখিনা খাতুনের পিতা শুকুর আলী মন্ডল প্রমুখ।

ইউনুছ আলী বিশ্বাস (মাস্টার) বলেন, আমি ৯ নং ওয়ার্ড সমাজ কর্মী বাদশা মন্ডলের মাধ্যমে জানতে পারি গোলাবাড়ি গ্রামের মৃত দরিদ্র কৃষক মোঃ মতিন মিয়া গত ৭ মাস আগে দুরারোগ্য রোগে মারা যান তবে তার স্ত্রী মানবেতর জীবনযাপন করছে। তিনি তার ছেলে ও মেয়ে নিয়ে জরাজীর্ণ পাটকাঠির ঘরে জীবনযাপন করছে।

আমি সরেজমিনে এসে বিধবা মহিলা দুরদশা দেখে তাকে একটা পাকা ঘর করার ব্যবস্থা করছি। দারিদ্র্য বিধবা সখিনা খাতুন বলেন, আমার স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে খুব কষ্টে আমার জীবন চলছে, আমার থাকার ঘর ও নেই। আমি আমার ছেলে মেয়ে নিয়ে অসহায় ভাবে জীবন যাপন করছি। ঝর বৃষ্টি আসলে ছেলে মেয়ে নিয়ে অন্যের ঘরে আশ্রয় নিতে হয়।

আজ প্রযন্ত চেয়ারম্যান মেম্বার আমাকে কোন প্রকার সাহায্য সহযোগী করে নাই। পরে আমি জানতে পারি ইউনুস মাস্টার ভালো মানুষ তিনি সবার বিপদে পাশে দাড়াই তাই যেনেই তার কাছে আমার অসহায় অবস্থা বল্লে তিনি আমাকে ঘর করে দিচ্ছেন। তিনি আমাকে আরও বলেন আমার মেয়ে বিয়ে সকল ব্যবস্থাও করে দিবেন। পরে স্থানীয়দের নিয়ে মিলাদ ও দোয়া করা হয়।