ভারতে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি খারাপ থেকে আরো খারাপের দিকে যাচ্ছে। আর পুরো দেশ রয়েছে ঝুঁকিতে। মঙ্গলবার এ কথা বলেছেন নীতি আয়োগের সদস্য ড. ভিকে পাল।

তিনি করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মিডিয়ার সামনে ব্রিফিং করছিলেন। এ সময় ভিকে পাল বলেন, আমরা ভয়াবহভাবে সংক্রমণ বৃদ্ধির মোকাবিলা করছি। কোনো কোনো জেলায় এই পরিস্থিতি আরো খারাপ। আর পুরো দেশ কার্যকরভাবেই ঝুঁকিতে। এই ভাইরাসকে নির্মূল করা প্রয়োজন।

এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া। এতে বলা হয়, সাপ্তাহিক হিসাবে করোনায় আক্রান্তের জাতীয় গড় বর্তমানে শতকরা ৫.৬৫ ভাগ। তবে মৃত্যুহার বেড়ে যাওয়ায় তা উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠেছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা গর্ব করেছিলাম যে মৃত্যুহার কমে গেছে। কিন্তু বর্তমানে মৃত্যুহার চারগুণ। ৭৩ থেকে তা এখন ২৭১ এ পৌঁছে গেছে। তিনি এমন এক সময়ে এই তথ্য দিলেন যখন ভারতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নতুন করে শুরু হয়েছে। বিশেষ করে মহারাষ্ট্রে এই সার্জ ব্যাপক আকারে দেখা দিয়েছে। শুধু মঙ্গলবারে ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬,২১১ জন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণ বলেছেন, মহারাষ্ট্রে সাপ্তাহিক ভিত্তিতে করোনা পজেটিভের হার শতকরা ২৩ ভাগ। জাতীয় গড় পজেটিভের শতকরা হার ৫.৬৫ থেকে এই হার অনেক বেশি। পাঞ্জাবে বর্তমানে সাপ্তাহিক গড় আক্রান্তের শতকরা হার ৮.৮২ ভাগ, ছত্তিশগড়ে ৮ ভাগ, মধ্যপ্রদেশে ৭.৮২ ভাগ, তামিলনাড়ুতে শতকরা ২.৫০ ভাগ, কর্নাটকে ২.৪৫ ভাগ, গুজরাটে ২.২ ভাগ এবং দিল্লিতে ২.০৪ ভাগ। মহারাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতিতে সরকার আরো একবার উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।