Home Bangladesh বিশ্বনবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ

বিশ্বনবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ

বিশ্বনবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ
রায়হান জামান, কিশোরগঞ্জ সংবাদদাতাঃ বিশ্বনবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ ফ্রান্সে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশে ও মিছিল করেছে কিশোরগঞ্জ নরসুন্দা ব্লাড ডোনেট সোসাইটি। শুক্রবার (৬ নভেম্বর) বাদ জুম্মা কিশেরগঞ্জ ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদ চত্বরে এই বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, নরসুন্দা ব্লাড ডোনেট সোসাইটি সংগঠনের উপদেষ্টা নূরুজ্জামান মিলন, সভাপতি,আল আমিন, সাধারণ সম্পাদক, মো. সোহাগ, প্রচার সম্পাদক, সুমন, উজ্জল,সুমন,আরিফ সোহাগ,আজিজুল নাদিম, আমিনুল ইসলাম, সোহেল,সাগর,মীর হোসেন,জুয়েল, মেহেদী, এনায়েতউলাহ,রাজন, মুন,রাকিব,তুহিন,মো.রাজন মিয়া প্রমূখ। এসময়ে বক্তারা বলেন, ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় মানবতার মুক্তির দূত,শান্তির প্রতীক, মহানবী (সা.) কে নিয়ে যে ঘৃণ্য কাজ করা হয়েছে, তাতে বিশ্ব মুসলিমদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে। বেঈমানরা বেঁচে থাকার জন্য যুদ্ধ করে আর আমরা মুসলিম সম্প্রদায় ইসলাম ও নবীর ইজ্জতের হেফাজত রক্ষার জন্য জিহাদ করে জীবন দিতে সর্বদা প্রস্তুত থাকে। বক্তারা দেশের সরকার প্রধানকে উদ্দেশ্য করে বলেন, অনতিবিলম্বে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ফ্রান্সের এ ঘৃণ্য কাজের নিন্দা জানান।
রাষ্ট্রীয়ভাবে ফ্রান্সের সকল পণ্য বর্জন করে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করুন। এছাড়া বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে প্রধানমন্ত্রী বরাবর কিছু দাবি পেশ করা হয়। দাবিগুলো হচ্ছে, বাংলাদেশস্থ ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে ফ্রান্স সরকার কর্তৃক আমাদের প্রিয় নবী সা: এর বিরুদ্ধে অবমাননাকর কার্টুন ছবি প্রচার বন্ধ করতে নির্দেশ প্রদান করতে হবে এবং নিজেদের কৃতকর্মের জন্য মুসলিম বিশ্বের কাছে নিঃশ্বর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। ফ্রান্সে বসবাসকারী মুসলমান নারী-পুরুষের উপর জুলুম নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। তাদের স্বাধীনভাবে ধর্ম পালনের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। বন্ধ করে দেওয়া মসজিদ মাদরাসা খুলে দিতে হবে। এসব দাবি পূরণে ব্যর্থ হলে ফ্রান্সের সাথে সকল প্রকার কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে। সেখানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় দূতকে দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে।
তাদের সাথে সকল প্রকার ব্যবসায়ীক লেনদেন বন্ধ করতে হবে। ফ্রান্সের সাথে সকল প্রকার আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকবে। তাদের উৎপাদিত কোন পণ্য বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা বিক্রয় করবে না। সকল প্রকার ফ্রান্স পণ্য বর্জন করতে হবে। পরে বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে “বিশ্ব নবীর অপমান সইবে না আর মুসলমান” এই স্লোগানে বিক্ষোভ মিছিলটি জেলা শহরের বটতলা মোড় প্রদক্ষিন করে গুরুদয়াল সরকারি কলেজ মাঠে এসে মাও. শরীফুল ইসলাম ফরহাদ ফারুকী’র মুনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্ত হয়।