আর্জেন্টিনাকে ব্রাজিলের হুমকি

সবশেষ গত জুলাইয়ে ঘরের মাঠে আর্জেন্টিনার কাছে কোপা আমেরিকার ফাইনালে হেরেছিল ব্রাজিল। তাই বদলা তো এবার নিতেই হয়!

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হওয়ার আগে আত্মবিশ্বাসে টগবগ করছে ব্রাজিল। রোববার (সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত একটায় আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হবে সেলেসাওরা। এর আগে আর্জেন্টিনাকে ‘হুমকি’ দিয়ে রাখলেন ব্রাজিলিয়ান তারকা এভারতন রিবেইরো।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ভেনিজুয়েলার মাঠে ৩-১ গোলে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। তবে চিলিকে হারিয়ে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে জয়যাত্রা ধরে রাখার মধ্য দিয়ে টানা সাত ম্যাচ জিতে ইতিহাস গড়েছে ব্রাজিল।

 শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকালে চিলির বিপক্ষে ১-০ গোলের কষ্টের জয় পেয়েও ‘ঐতিহাসিক’ অর্জনের আনন্দে ভাসছেন এভারতন-ওয়েভেরতেনরা।
 
এদিন শুরু থেকেই ৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের কঠিন পরীক্ষা নেয় চিলি। গোলপোস্টের নিচে বারবারই চীনের প্রাচীর হয়ে ছিলেন অভিজ্ঞ ক্লদিও ব্রাভো। তারপরেও চেষ্টা চালিয়ে গেছে সেলেসাওরা।
 
কিন্তু নেইমারের পাসে গোল করতে পারেননি ব্রুনো গিমারয়েস। ২৮ মিনিটে আরও একবার সুযোগ পেয়েছিলেন দলের সেরা তারকা নেইমার। কিন্তু ফাঁকায় বলে পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছেন পিএসজি তারকা। উল্টো ৩৩ মিনিটে ভয় ধরিয়ে দিয়েছেন চিলির ইভান মোরালেস। তার গোল অফসাইডের ফাঁদে বাদ না পড়লে বিপদে পড়তে হত ব্রাজিলকে।
শেষ পর্যন্ত ব্যবধান গড়ে দেওয়া একমাত্র গোলটি দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নেমে করেন এভারতন রিবেইরো। ম্যাচে ৬৪তম মিনিটের গোলটির পর আর কোনো গোল হয়নি। ফলে ১-০ গোলের কষ্টের জয়ে চিলির মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল। এতে নিজেদের ইতিহাসে এই প্রথম বিশ্বকাপ বাছাইয়ে শুরুর সাত ম্যাচের সবগুলো জয়ের কৃতিত্ব দেখাল ব্রাজিল। শুধু তাই নয়, লাতিন অঞ্চলের বাছাইপর্বে টানা পাঁচ ম্যাচে কোনো গোল খায়নি তিতের দল।
বলাই যায়, শতভাগ জয়ের ব্যাপারটি আত্মবিশ্বাস জোগাবে ব্রাজিল শিবিরে। আর সেটি মাথায় রেখেই হয়তো আলবিসেলেস্তেদের একটা ‘হুমকি’ দিয়ে রাখলেন এভারতন। ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গারের লক্ষ্য মেসিদের হারিয়ে ‘আটে আট’ করা। তিনি বলেন, ‘ঐতিহাসিক টানা সাত জয়। এখন আমরা আশা করি, এই জয়কে আটে আট করার।’
 
ব্রাজিলের হয়ে ২০১৪ সালে অভিষেক হয় এভারতন রিবেইরোর। এ পর্যন্ত বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি তিনি। ১৬ ম্যাচে তার গোল ২। গত তিন মাসের ব্যবধানে তিনি এ দুটি গোল করেন। শেষ গোলটি এল চিলির বিপক্ষে।
বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ৭ ম্যাচের ৭টিতেই জিতে ২১ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরেই আছে সেলেসাওরা। সমান ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা।
আরো পড়ুন :  টি-২০ বিশ্বকাপের ধারাভাষ্য প্যানেলে যারা