মানিকগঞ্জে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

34
মুহাম্মদ রেজাউল করিম, দৌলতপুর উপজেলা প্রতিনিধিঃ
৭ বছরের এক নাবালিকা শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মানিকগঞ্জ ঘিওর থানায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ ধর্ষণের অভিযোগে আটককৃত আবু বক্করকে (৩৫) আজ বৃহস্পতীবার সকালে মানিকগঞ্জ কোর্টে পাঠানো হয়ছে।
ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে গ্রাম্য শালিসে ধর্ষককে ৩৫ হাজার টাকা জড়িমানা করেছে স্থানীয় গ্রাম্য মাতব্বরবৃন্দ। ঘটনাটি ঘটেছে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার গোলাপনগর পশ্চিমপাড়া গ্রামে।
জানা যায়, মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার গোলাপনগর গ্রামের ডিম ব্যবসায়ী মোঃ কুদ্দুছ মিয়ার ছেলে ঘিওর বাজারের তরকারি ব্যবসায়ী আবু বক্কর মিয়ার পাশের বাড়ির উঠানে বিকাল বেলায় ঐ শিশুটি খেলা করতে ছিল। শিশুটিকে চকলেট ও টাকার লোভ দেখিয়ে ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।
পরে মেয়েটি চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। মেয়েটিকে উদ্ধার করে তার বাবা এবং মার কাছে দিয়ে আসে। এক পর্যায়ে তার শাররিক অবস্থা অবনতি হলে ২৮ মার্চ ঘিওর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে থেকে পরে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এদিকে ঘটনাটি গাঢাকা দেবার জন্য মাতব্বরগণ গ্রাম্য শালিসের আয়োজন করেন। গ্রাম্য শালিষে ধর্ষককে ৩৫ হাজার টাকা জড়িমানা করে এবং কোন ধরনের মামলা না করার জন্য পরিবারটিকে বলা হয়। রিক্সা চালক বাবা তার সন্তানের সুষ্ট বিচারের দাবি করেন।
এবং দোষীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শিবালয় সার্কেল তানিয়া সুলতানা জানান, এ ব্যাপারে ৩ জনকে আসামী করে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে ঘিওর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান।
তিনি আরও বলেন আমরা গোপন সুত্রে খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক আবু বক্করকে (৩৫) আটক করা হয়। বাকি আসামীদের আটকের জোর তৎপরতা চালানো হচ্ছে।