ঢাকাসোমবার ৬ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩
ঢাকাসোমবার ৬ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩

আজকের সর্বশেষ সবখবর

পার্বত্যাঞ্চলের বিষয়ে সুপারিশ করবে মানবাধিকার কমিশন

Sub Editor news
জানুয়ারি ১৮, ২০২৩ ৭:১৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পার্বত্যাঞ্চলের বিষয়ে সুপারিশ করবে মানবাধিকার কমিশন

 

রাঙ্গামাটিতে মানবাধিকার লঙ্ঘন বিষয়ক গণ শুনানী। তিন পার্বত্য জেলা সফরে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন টিম।

 

মোফাজ্জল হোসেন ইলিয়াছঃ

 

মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধ ও সুরক্ষা কমিটির সদস্যদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছে, জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। সোমবার ১৬ জানুয়ারি সন্ধায় জেলা শহরের চেঙ্গী স্কোয়ারস্থ সার্কিট হাউসে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মোঃ সহিদুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

 

বান্দরবান লামায় ম্রো পাড়ায় বাড়ি ঘর আগুণে জ্বালিয়ে দেয়া এবং চাষের জমি পুড়িয়ে উজাড় করে দেওয়াকে অবশ্যই মাববাধিকার লঙ্ঘন উল্লেখ করে কমিশন চেয়ারম্যান বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে যে অভিযোগ গুলো পেয়েছি সে গুলোকে আমরা খতিয়ে দেখছি। পাহাড়ের মানবাধিকার পরিস্থিতি বিষয়ে আমরা স্বোচ্ছার আছি, যেখানেই মানবাধিকার লঙ্ঘন হবে সেখানের সুনিদিষ্ট অভিযোগ ও তথ্য পেলে এ কমিশন কাজ করবে।

 

তিন পার্বত্য জেলার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, আমরা বিভিন্ন সহায়ক শক্তি গুলোকে বলছি মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধ ও সুরক্ষা বিষয়ে সহায়তা দেওয়ার জন্য। পার্বত্যঞ্চলের বিষয় গুলো নিয়ে আমরা বিশ্লেষণ করবো, সরকারকে আমরা বলবো যেনো যথাযথ প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। গত ৮ ডিসেম্বর কমিশনের ৬ষ্ঠ কমিশন গঠিত হওয়ার পর মানবাধিকার লঙ্ঘন বিষয়ে খাগড়াছড়িতে প্রথম মতবিনিময় সভার মাধ্যমে তিন পার্বত্য জেলায় কাজ শুরু করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। ইতি মধ্যে বিভিন্ন জায়গা থেকে যা যা অভিযোগ আসছে সেসব বিষয় নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। পাহাড়ে সংগঠিত বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ থাকবে এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধ ও সুরক্ষা বিষয়ে এ কমিশন সফল ভাবে কাজ করতে পারবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

 

সভা থেকে বুধবার ১৮ জানুয়ারি রাঙামাটিতে সংগঠিত অভিযোগসহ বিভিন্ন বিষয়ে গণ শুনানী অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানানো হয়।

 

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের পরিচালক (অভিযোগ ও তদন্ত) যুগ্ম সচিব নারায়ন চন্দ্র সরকারের স্বাগত বক্তব্য ছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য মো: সেলিম রেজা, মোঃ আমিনুল ইসলাম, কাউসার আহমেদ, কংজরী চৌধুরীর, উপ-পরিচালক মোঃ আজহার ও পুলিশ সুপার মোঃ নাইমুল হক বক্তব্য রাখেন।

আরো পড়ুন :  জুনে চালু হচ্ছে রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট

 

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য ও তিন পার্বত্য জেলার দ্বায়ত্ব প্রাপ্ত খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীর সঞ্চালনায় মুক্ত আলোয় পার্বত্যাঞ্চলে বিভিন্ন ভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘনের কথা তুলে ধরে, খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি জিতেন বড়ুয়া, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কানন আচার্য, খাগড়াপুর মহিলা কল্যাণ সমিতির পরিচালক নারী নেত্রী শেফালিকা ত্রিপুরা, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি সুদর্শন দত্ত, ভারত প্রত্যাগত শরনার্থী বিষয়ক টাক্সফোর্স সদস্য এডভোকেট মহিউদ্দিন কবির, বীর মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা, সাবেক যুগ্ন-সচিব ও বীর মুক্তিযোদ্ধা উক্য জেন মারমা ও সাবেক সাংসদ যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা বক্তব্য রাখেন।

 

বক্তরা বলেন, পাহাড়ে অবৈধ অশ্রের উৎস খুজে বের করতে হবে। যতদিন অবৈধ অশ্র থাকলে মানবাধীকার লঙ্ঘন হবেই। এছাড়া নারীর প্রতি সহিংসতা, বিবাহ বিচ্ছেদ পরবর্তী শিশু অধিকার নিশ্চিত করা, বিভিন্ন নির্বাচন পূর্ব ও পরর্বতী সাম্প্রদায়িকতার দোহায়ে সহিংসতা রোধসহ সকল প্রকার মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধ ও সুরক্ষায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনকে অগ্রণী ভুমিকা পালনের অনুরোধ জানানো হয়।

 

এসময়, খাগড়াছড়ি জেলা মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধ ও সুরক্ষা কমিটির সদস্য (জেলা ও দায়রা জজ) আশরাফুল আলম, পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) কাজী আরফান আশিক, উপ-পরিচালক মোঃ আজহার হোসেন, উপ-পরিচালক জামাল উদ্দিন, রাঙামাটি জেলা কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. আবু সালেহসহ বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

 

তিন পার্বত্য জেলায় মাববাধিকার কমিশনের সফরকে কেন্দ্র করে পার্বত্যাঞ্চলে মানববাধিকার লঙ্ঘন বন্ধসহ বিভিন্ন দাবিতে ১৫ জানুয়ারি খাগড়াছড়িতে আধাবেলা হরতাল এবং সোমবার ১৬ জানুয়ারি বিকেলে ভিন্ন ভিন্ন ব্যানারে পাহাড়ে বেদখলকৃত ভূমি ফেরত ও ২০১৮ সালের ১৮ আগষ্ট স্বনির্ভর হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবীতে মাববাধিকার কমিশনের তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করে দোষিদের শাস্তির বাদীতে মানববন্ধন করেন নিহতের পরিবারের সদস্য ও ভূমি রক্ষা কমিটি।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
সেহরির শেষ সময় - ভোর ৫:১৯
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৫:৫১
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:২৪
  • ১২:১৬
  • ৪:১১
  • ৫:৫১
  • ৭:০৬
  • ৬:৩৭