করোনা মোকাবেলায় নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন খানসামা থানা পুলিশ বাহিনী

16

চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ :দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি:

মাস্ক পরার অভ্যাস করুন, করোনামুক্ত বাংলাদেশ গড়ুন’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে প্রাণঘাতীমহামারী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে খানসামা থানা পুলিশের পক্ষ থেকে খানসামা উপজেলায় বিভিন্ন দোকান পাটে, বিভিন্ন মোড়ে, সড়কে যানবাহনের যাত্রী, ভ্যান চালক, সাধারন পথচারী ও বিভিন্ন হাট বাজারে মাক্স ও জনসচেতনা মুলক লিফলেট বিতরন করেছে খানসামা থানা পুলিশ।

প্রতিদিনের মতো মঙ্গল বার (৬ এপ্রিল) সকালে খানসামা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কামাল হোসেন এর নেতৃত্বে খানসামা উপজেলার বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে সড়কের মাস্ক বিহীন বিভিন্ন দোকানী, যানবাহনের যাত্রী, ভ্যান চালক, সাধারন পথচারী ও বিভিন্ন হাট বাজারে পথচারীদের মাঝে সচেনতামুলক মাক্স ও জনসচেতনা মুলক লিফলেট বিতরন করা হয়েছে।

এ সময় খানসামা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কামাল হোসেন বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সারা দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সম্মুখ সারির যোদ্ধা হিসেবে শুরু থেকেই নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন খানসামা থানা পুলিশ বাহিনী।

সম্প্রতি সময়ে আবারও ছড়িয়ে পড়েছে বৈশ্বিক মহামারি করোনা। তাই করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রকোপ মোকাবিলায় জেলা পুলিশের দিক নির্দেশনা মোতাবেক খানসামা উপজেলায় জনসচেতনতা মূলক প্রচার-প্রচারনা চালাচ্ছে খানসামা থানা পুলিশ।

এসময় জনসাধারণের মাঝে মাস্ক ও জনসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করছি।জনস্বার্থে পুলিশের এই প্রচারণামূলক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কামাল হোসেন আরো বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে নিরাপদ থাকতে সাবান পানি ব্যবহারের সুযোগ না থাকলে হাত ধোয়ার ক্ষেত্রে ভালো মানের স্যানিটাইজার ব্যবহার, হাত না ধুয়ে নাক, মুখ ও চোখ স্পর্শ না করা, খুব বেশি প্রয়োজন না হলে নাক, মুখ চোখ স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকা, হাঁচি বা কাশি দেয়ার সময় যিনি হাঁচি বা কাশি দিচ্ছেন তার থেকে কমপক্ষে তিন ফুট দূরে থাকা, নিজে হাঁচি বা কাশি দেয়ার সময় টিস্যু দিয়ে বা কনুই ভাঁজ করে নাক মুখ ঢাকা ব্যবহৃত টিস্যুটি তাৎক্ষণিক ঢাকনা যুক্ত ময়লার ঝুড়িতে ফেলে দেওয়া।