চুয়াডাঙ্গায় স্বাস্থ্যবিধি না মানার বাড়ছে সংক্রমণ কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

120

জেলা প্রতিনিধিঃ

চুয়াডাঙ্গায় করোনা সংক্রমণ ব্যাপকভাবে বাড়লেও স্বাস্থ্যবিধি মানাসহ সরকারের ১৮ দফা নির্দেশনা মেনে চলছেন না অধিকাংশ মানুষ। তবে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে কঠোর অবস্থানে আছে জেলা প্রশাসন। স্বাস্থ্যবিধি অমান্য ও মাস্ক না পরার দায়ে ১৯ মামলায় সাড়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গায় নতুন করে ১৪ জনের শরীরে করোনা শন্তাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২ জনে। করোনা সংক্রমণ বাড়ায় বাজার, শপিংমলে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত, গণপরিবহনে অর্ধেক আসন ফাঁকা রাখা ও জনসমাগম সীমিত করাসহ ১৮ দফা নির্দেশনা জারি করেছে সরকার।

তবে সরকারের নতুন করে দেওয়া ১৮ দফা নির্দেশনা প্রয়োগে চুয়াডাঙ্গায় মাঠ পর্যায়ে দেখা যায়নি সাধারণ মানুষের মধ্যে তেমন সচেতনতা। চুয়াডাঙ্গার কাঁচা বাজারগুলোয় মাস্ক ছাড়াই চলাফেরা করছেন বেশিরভাগ মানুষ।

মানছেন না সামাজিক দূরত্ব। এ বিষয়ে একেকজন দিচ্ছেন এক এক অজুহাত। কাঁচা বাজারগুলোয় দেখা যায়- সবজি, মাছ, মুদি, ফল বিক্রেতাসহ অধিকাংশ দোকানদারের মুখেই নেই মাস্ক। আর কেউ কেউ মাস্ক পড়লে তা নেই সঠিক স্থানে। বিনোদন কেন্দ্র, রেস্টুরেন্ট, গণপরিবহন, হাট-বাজার, সড়ক সব জায়গায় মানুষের ভিড়। সবখানেই স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মানায় অনীহা দেখা গেছে।

এদিকে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না গণপরিবহনেও। মাস্কবিহীন যাত্রী তোলার পাশাপাশি নেই জীবাণুমুক্ত করার কোনো ব্যবস্থা।

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার জানান, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের ১৮ দফা নির্দেশনা বাস্তবায়ন মাঠ পর্যায়ে অভিযান শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। সারা দিনে ১৯ মামলায় ১০ হাজার ৪৫০ টাকা জরিমানার অর্থ আদায় করা হয়েছে।

সেই সাথে করোনা সচেতনতায় বিভিন্ন কার্যক্রমও চালানো হচ্ছে। দিনভর জেলাব্যাপী এ অভিযানের নেতৃত্ব দেন স্ব স্ব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।