তেঁতুলিয়ার এসিল্যান্ড স্বপরিবারে করোনায় আক্রান্ত।

তেঁতুলিয়ার এসিল্যান্ড স্বপরিবারে করোনায় আক্রান্ত।

নিজস্ব প্রতিবেদক, পঞ্চগড়: পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার এসিল্যান্ড (সহকারী কমিশনার, ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মাসুদুল হক স্বপরিবারে করোনায় (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন।

এদের মধ্যে রয়েছেন তাঁর স্ত্রী মোছা. আরফিন আক্তার (২৮), পুত্র সন্তান মো. আফরাদ আইয়ান (১ বছর ৫ মাস) এবং শ্যালক আরমান হোসেন (২৬)। জানা যায় গতকাল ১৭ জুলাই রাতে তিনি অসুস্থবোধ করেন এবং শরীরে প্রায় ১০২ ডিগ্রি সেলসিয়াস জ্বর অনুভব করায় আজ (১৮ জুলাই) উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে টেস্ট করায় (RAT)।

এতে তাঁর টেস্টের রেজাল্ট করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। বর্তমানে তাদের শরীরে উপসর্গ স্বরূপ জ্বর, সর্দি ও কাশি রয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, তেঁতুলিয়া’র পরামর্শ অনুযায়ী তিনি পরিবারসহ বর্তমানে আবাসিক সরকারি বাসভবনে (সৈকত) হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

করোনাকালীন সময়ের শুরু হতে এ পর্যন্ত তিনি জীবনের ঝুঁকি উপেক্ষা করে করোনা মোকাবেলায় দায়িত্বপালন করেছেন। তিনি একজন সম্মুখ সারির করোনা যোদ্ধা। উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে তাঁর ও পরিবারের জন্য দোয়া ও সুস্থতা কামনা করা হয়েছে। মুঠোফোনে কথা হলে এসিল্যান্ড মাসুদুল হক জানান আল্লাহর রহমতে শারীরিক তেমন জটিলতা নেই। হালকা জ্বর ও কাশি রয়েছে।

তিনি তাঁর ও পরিবারের সুস্থতার জন্য সকলে নিকট দোয়া চেয়েছেন। উল্লেখ্য যে, সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে তিনি তেঁতুলিয়া উপজেলায় দায়িত্ব গ্রহণের পর হতে জনপ্রশাসনকে জনবান্ধব ও জনসেবায় রূপান্তরিত করতে বিভিন্ন উদ্ভাবনী উদ্যোগ গ্রহণ পূর্বক সফলতার সাথে বাস্তবায়নসহ অত্যন্ত দক্ষতা, সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে সময়ে সময়ে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে স্বীয় পদে দুই বছর যাবত অত্র উপজেলায় সরকারি দায়িত্ব পালন করে ইতোমধ্যে জনবান্ধব কর্মকর্তা হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন। সম্প্রতি তিনি সিনিয়র সহকারী সচিব হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেছেন।

আরো পড়ুন :  রংপুরে ফটো সাংবাদিক আদর রহমানের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে মানববন্ধন