বাগেরহাটে প্রতিবন্ধী মেয়ে ধর্ষণ

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ
বাগেরহাট সদর থানার ইউনিয়নের খেগড়াঘাট গ্রামের ইদ্রিস  আলীর মেঝ মেয়ে মুন্নি আক্তার  একজন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী,
৩১ মার্চ সকাল ১১ টা নাগাদ একই ইউনিয়নের কালিয়া নিবাসী শাহাবুদ্দিন (৫৫) মুন্নিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।
ঘটনাস্থল থেকে জানা যায় ৩১ মার্চ সকালে মুন্নি তার নিজ গৃহে অবস্থান করছিল,
সে সময় শাহাবুদ্দিন নির্বাচনী প্রচারে লিফলেট নিয়ে তাদের বাড়িতে যায় এবং মুন্নিকে জিজ্ঞেস করে বাসায় কেউ আছে কিনা জবাবে মুন্নি  বাসায় কেউ নেই বলে তাকে জানায় এবং শাহাবুদ্দিন সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মুন্নিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।
শাহাবুদ্দিন মুন্নির মুখ চেপে ধরে নিয়ে ঘরের ভেতর মেঝেতে মুন্নিকে ধর্ষণ করে, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মুন্নি ভয় ভয় বিষয়টি তার প্রতিবেশীদের কে জানায় পরবর্তীতে গ্রামবাসী বিষয়টি জানতে পেরে শাহাব উদ্দিনকে খোঁজার প্রচেষ্টা চালায় এবং তাকে খুঁজে পায় তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মনি মল্লিক কে জানায় এবং তিনি অভিযুক্ত শাহাবুদ্দিনকে পুলিশে সোপর্দ করেন।
পরে পুলিশ এসে তাকে আটক করে এবং প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শাহাবুদ্দিন ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেন।
ভুক্তভোগী মুন্নি ও তার পরিবার এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।
# বাগেরহাটে প্রতিবন্ধী মেয়ে ধর্ষণ  # বাগেরহাটে প্রতিবন্ধী মেয়ে ধর্ষণ # বাগেরহাটে প্রতিবন্ধী মেয়ে ধর্ষণ

আরো দেখুনঃ

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় কলাবাগানে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৫

বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) রাতে, উপজেলার দক্ষিণ গাজীপুুর এলাকায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত ৫ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে পরিচিত একজনের সাথে দক্ষিণ গাজীপুর গ্রামে ঘুরতে যান ওই নারী। এরপর সন্ধ্যার দিকে স্থানীয় ছয় যুবক অন্য আরো ২ যুবকের সহযোগিতায় ওই গৃহবধূকে পার্শবর্তী একটি কলাবাগানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এরপর ওই গৃহবধূ রাতে ভান্ডারিয়া থানায় এসে বিষয়টি জানালে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে ৮ জনকে আসামি করে ভান্ডারিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

গাইবান্ধায় আরিফুল হত্যা মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন, ২ জন খালাস

গাইবান্ধায় আরিফুল হত্যা মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন, ২ জন খালাস

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শিশু আরিফুল ইসলাম (১৩) হত্যা মামলায় পাঁচজন আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় দুইজনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।