DoinikAstha Epaper Version
ঢাকাশুক্রবার ১২ই জুলাই ২০২৪
ঢাকাশুক্রবার ১২ই জুলাই ২০২৪

আজকের সর্বশেষ সবখবর

ব্যালন ডি অর অ্যাওয়ার্ড

News Editor
অক্টোবর ১৩, ২০২০ ৭:১২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ব্যালন ডি অর অ্যাওয়ার্ড: ফুটবলে সবচেয়ে দামি দলীয় টুর্নামেন্ট

মাহবুবুর রহমান হিমু : ফুটবলে সবচেয়ে দামি দলীয় টুর্নামেন্ট যেমন বিশ্বকাপ তেমনি সবচেয়ে দামি ব্যক্তিগত অ্যাওয়ার্ড হলো ব্যালন ডি অর।কারও কাছে ব্যালন ডি অর আবার কারও কাছে ফিফা দ্য বেস্ট।কোন অ্যাওয়ার্ডের মর্যাদা বেশি সেটা আপাতত তোলা থাকুক। আমরা আপাতত ঘুরে আসি পুরষ্কারের শুরুতে।

ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে পুরাতন পুরষ্কার এবং সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পুরষ্কার হিসেবে পরিচিত। ১৯৫৬ সাল থেকে ফ্রেঞ্চ নিউজ ম্যাগাজিন ”ফ্রান্স ফুটবল” এই ব্যক্তিগত অ্যাওয়ার্ডটি দেয়া শুরু করে। প্রথমে ব্যালন ডি অর যেভাবে দেয়া হত তার বদলে ভবিষ্যতে তারা ধীরে ধীরে তাদের নিয়মে পরিবর্তন আনে। উল্লেখযোগ্য ভোটের নিয়ম, মনোনয়নের নিয়ম ইত্যাদি।

-ব্যালন ডি অর ,যখন প্রথমে দেয়া শুরু করে তখন শুধু ইউরোপিয়ান ফুটবলারেরাই এই পুরষ্কার জিততে পারতো। কোন ফুটবলার যদি ইউরোপিয়ান লীগে খেলে কিন্তু সে নন ইউরোপিয়ান তবে সে এই পুরষ্কারের জন্য মনোনয়ন পাবে না। ১৯৯৫ সাল থেকে এই নিয়মের পরিবর্তন আনে ফ্রেঞ্চ ম্যাগাজিন।

তখন তারা সিদ্ধান্ত নেয় পুরো পৃথিবীর সব জায়গার ফুটবলারই এই মর্যাদাপূর্ণ পুরষ্কারে অংশ নিতে পারবে তবে তাদের কে ইউরোপিয়ান ক্লাবে খেলতে হবে। অর্থাৎ নন ইউরোপিয়ান ক্লাবের পারফর্মেন্স এই পুরষ্কারের জন্য আওতাভুক্ত ছিল না। তবে ২০০৭ সালে সব নিয়মের পরিবর্তন এনে বৈশ্বিক পুরষ্কার হিসেবে ঘোষণা করা হয়। অর্থাৎ এই সময় থেকে যেকোন দেশের যেকোন লীগের ফুটবলারই মনোনয়ন পাবে।

ব্যালন ডি অর অ্যাওয়ার্ডে প্রথমে শুধু সাংবাদিকদের ভোটেই নির্ধারিত হত কে ব্যালন ডি অর জিতবে। তবে ভবিষ্যতে এই নিয়মে পরিবর্তন করে প্রতিটি জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন এবং কোচকে ভোট দেয়ার অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ২০০৭ সাল থেকে এই নিয়ম চালু করা হয়।এর আগে ১৯৫৬-২০০৬ এই ৫০ বছর শুধু সাংবাদিকদের ভোটেই ব্যালন ডি অর’এর নিষ্পত্তি হত।১৯৫৬ সালে প্রথম ব্যালন ডি অর জিতে স্যার স্টানলি ম্যাথিউস।

সেরা গোল এবং সেরা ফুটবলার রোনালদো

সবচেয়ে বেশি ব্যালন ডি অর জয়ী ক্লাব গুলো হলো :-

১:- বার্সেলোনা (১২ টি)

এটা হয়ত খুব স্বাভাবিক যে বার্সারই সবচেয়ে বেশি থাকবে। কারন এই ১২ টার অর্ধেকই যে এসেছে মেসির কাছ থেকে। এছাড়াও বাকি ৬ টি পুরষ্কার এসেছে লুইস সুয়ারেজ, ইয়োহান ক্রুইফ (২), রিস্টো স্টয়চকভ,রিভালদো, রোনালদিনহোর থেকে।

২:- রিয়াল মাদ্রিদ (১১ টি)

৩:- জুভেন্টাস-এসি মিলান (৮ টি করে)

এখন পর্যন্ত মাত্র ২ টি ক্লাবের ফুটবলারই টপ ৩ এর ৩ টি স্থান নিতে পারছে।

১. এসি মিলান (১৯৮৮) মার্কো ভ্যান বাস্তেন(উইনার) ফ্রাংক রাইকার্ড, রুড গুলিত।

২. বার্সেলোনা (২০১০) মেসি (উইনার),জাভি, ইনিয়েস্তা

এখন পর্যন্ত মাত্র ১০ জন ফুটবলার এই পুরষ্কারটি একবারের অধিক জিতেছে।

১. লিওনেল মেসি (৬ )

২. রোনালদো (৫)

৩. ইয়োহান ক্রুইফ (৩)

৪. মার্কো ভ্যান বাস্তেন (৩)

৫.মিশেল প্লাতিনি (৩)

৬. ফ্রেঞ্জ বেকেনবাউয়ার (২)

৭. কেভিন কিগান (২)

৮. কার্ল হেইঞ্জ রুমেনিগ (২)

৯. আলফ্রেডো ডি স্টেফানো (২)

১০. রোনালদো নাজারিও (২)

ব্যালন ডি অর জিতা সবচেয়ে কঠিন হলো গোলকিপার এবং ডিফেন্ডারদের জন্য। বর্তমান সময়ে তো অসম্ভবই বটে। তা সত্বেও একমাত্র ডিফেন্ডার হিসেবে ২ বার ব্যালন ডি অর জিতেছেন ফ্রেঞ্জ বেকেনবাউয়ার। একমাত্র গোলকিপার হিসেবে ব্যালন ডি অর জয়ের বিরল রেকর্ড রয়েছে লেভ ইয়াসিনের নামে যাকে সর্বকালের সেরা গোলকিপার হিসেবেই ধরা হয়। ১৯৬৩ সালে তার অতিমানবীয় পারফর্মেন্সের জন্য সে এই পুরষ্কার পেয়েছিল ডায়নামো মস্কো এর হয়ে।

১৯৬৫ সাল থেকে ২০১৯ পর্যন্ত কখনওই এই পুরষ্কার দেয়া হতে বিরত ছিল না ফ্রেঞ্চ ম্যাগাজিন। তবে এবারই প্রথম তারা এই পুরষ্কার দিচ্ছে।কারন টা সবারই জানা, করোনাভাইরাস এর জন্য।যদি এবার ব্যালন ডি অর দিতো তবে আপনার মতে কে এর যোগ্য ছিল? আমার মতামত কিন্তু রবার্ট লেভান্ডোস্কির পক্ষে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
সেহরির শেষ সময় - ভোর ৩:৪৯
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:৫৩
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৪
  • ১২:০৭
  • ৪:৪৩
  • ৬:৫৩
  • ৮:১৮
  • ৫:১৮